গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত অনলাইন নিবন্ধন নাম্বার ৬৮

ঢাকার পল্টন ও বনশ্রী থেকে ৩কেজি আফিম উদ্ধার ২ জন গ্রেফতার

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১০ দিন ৪ ঘন্টা ৩ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 335
...

 

 

মোঃ রিপন হাওলাদার ঃ

রাজধানীর বিভিন্ন স্থান হতে তিন কেজি আফিম সহ দুই জনকে আটক করেছে
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি) ।
 আজ ২ জুলাই দুপুর ১ টায় ডিএনসি উত্তরের কার্যালয়ে এ বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ জাফরুল্লাহ কাজল বলেন
ঢাকা মহানগরীতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ঢাকা মেট্রোঃ কার্যালয় (উত্তর) এর জোরালো তৎপরতা অব্যাহত থাকায়।  কিছুদিন আগে আমাদের কাছে একটি গোয়েন্দা তথ্য আসে যে, একটি চক্র আফিমের বড় চালান ঢাকায় বাজারজাত করার চেষ্টা করছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে  গোয়েন্দা নজরদারী জোরদার করা হয় এবং এ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে বিশ্লেষণ করতে থাকি।

এরই ধারাবাহিকতায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক জনাব মোঃ জাফরুল্লাহ কাজল এর সার্বিক নির্দেশনায় ঢাকা মেট্রো কার্যালয় (উত্তর) এর উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান এবং সহকারী পরিচালক মোঃ মেহেদী হাসান এর তত্ত্বাবধানে  মোঃ শাহীনুল কবীর, পরিদর্শক মোহাম্মদপুর সার্কেল এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ চৌকষ টিম গত ০১/০৭/২০২২ইং তারিখ ঢাকার পল্টন মডেল থানাধীন পুরানা পল্টন লেন (ভিআইপি রোড) হতে ২(দুই) কেজি আফিমসহ ১(এক) জন আসামীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীর দেয়া তথ্যমতে বনশ্রী আবাসিক এলাকা থেকে ১ (এক) কেজি আফিমসহ আরো ১(এক) জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। সর্বমোট ৩(তিন) কেজি আফিমসহ মোট ২ জন আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতারকৃত  আসামীদের তথ্যঃ

(১) মোঃ আবুল মোতালেব (৪৬), নিজ জেলাঃ নোয়াখালী।

(তিনি দীর্ঘদিন যাবত ম্যানপাওয়ার ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন।) (২) মোঃ জাহাঙ্গীর সিদ্দিক ভূঁইয়া (88), নিজ জেলাঃ জামালপুর।

(তিনি দীর্ঘদিন যাবত একটি বেসরকারী গ্রুপ অব কোম্পানীর প্রজেক্ট ম্যাজোর হিসেবে কর্মরত থাকার আড়ালে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন।)

উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের বিবরণঃ

(১) একটি শপিং ব্যাগের ভিতরে একটি প্লাস্টিকের বয়ামের মধ্যে পলিথিনে মোড়ানো ২ কেজি আফিম, (২) একটি পলিথিনে মোড়ানো ১ কেজি আফিম।  আফিম একটি 'ক' শ্রেণির মাদকদ্রব্য। উদ্ধারকৃত ৩ (তিন) কেজি আফিম এর আনুমানিক বাজারমূল্য পৌনে ৩ কোটি টাকা।
এছাড়াও তিনি আরো বলেন:
গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, উদ্ধারকৃত আফিমের চালানটি ফেনী থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়। আসামীগণ উক্ত মাদকদ্রব্য বাজারজাত করার চেষ্টা চালাচ্ছিল বলে স্বীকার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ (সংশোধিত ২০২০) মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে এবং এই চক্রের সাথে জড়িত একাধিক ব্যক্তির তথ্য পাওয়া গেছে। প্রাপ্ত তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে এই নেটওয়ার্কের সকল সদস্যকেই তদন্তপূর্বক আইনের আওতায় আনা হবে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর ঢাকা মেট্রোঃ কার্যালয় (উত্তর) কর্তৃক ভবিষ্যতে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ সময় মাদকদ্রব্য সেবনে নিরুৎসাহিত করার উদ্দেশ্যে আফিম গ্রহণ করলে কি ধরনের ক্ষতিসাধন হতে পারে তা উল্লেখ করা হয়।

১) আফিম খেলে শ্বাসকষ্ট হতে পারে; ২) অবচেতন হয়ে পড়তে পারে;

৩) মুখ ও নাক শুকিয়ে যাওয়া, বমি বমি ভাব, কোষ্ঠকাঠিন্য ইত্যাদি হতে পারে। ৪) বেশি পরিমাণে খেলে মৃত্যুও ঘটতে পারে

...
Md Ripon Howlader
01988625536

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ