+

গুলশানে সড়ক দখল করে পিকাপ ইস্ট্যান্ড করিম ও জিয়ার চাঁদা বাণিজ্য

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ২ দিন ১৭ ঘন্টা ৪৬ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 1305
...

গুলশানে সড়ক দখল করে পিকাপ স্ট্যান্ড করিম ও জিয়ার চাঁদা বাণিজ্য

 

দেলোয়ার হোসেন/ রিপন হাওলাদার ঃ
রাজধানীর গুলশান ১ নং ডিএনসিসি  পাকা মার্কেটের পিছনের ১১ নং সড়কটি দখল করে গড়ে উঠেছে গাড়ি পার্কিং এর অবৈধ স্ট্যান্ড। বাড়ছে যানজট ও জনদুর্ভোগ। লোকজনের চলাচলে সৃষ্টি হচ্ছে প্রতিবন্ধকতা।সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে এভাবেই গাড়ি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে রয়েছে। গাড়ি পার্কিংয়ের দখলে থাকায় মার্কেটে আগত ক্রেতাদের যেমন সময় নষ্ট হচ্ছে তেমনি সড়কটি ব্যবহারে পোহাতে হচ্ছে অসহনীয় ভোগান্তি।সড়ক দখল করা গাড়ি পার্কিং নিয়ে গড়ে উঠেছে করিম ও জিয়ার  রমরমা চাঁদা বাণিজ্য। ফুটপাথ থেকে শুরু করে সড়কের কোথাও জন চলাচলের মতো পথ খালি নেই। অথচ কোটি টাকা ব্যয় করে সিটি কর্পোরেশন টাইলস বসিয়ে দৃষ্টিনন্দন ফুটপাত তৈরি করেছে জনসাধারণের চলাচলের জন্য।কে ব্যবহার করছে কাদের জন্য তৈরি করা হয়েছে ফুটপাত শুধুই প্রশ্ন রয়ে যায়। সড়কটিসহ আশেপাশের কয়েকটি সড়কের দু'পাশ বিভিন্ন দোকানীদের দখলে।মনে হচ্ছে টাইলস বসিয়ে ফুটপাত দখলকারীদের জন্য উপযোগী করে তোলা হয়েছে। আশেপাশের সড়কগুলো দখল করে যত্রতত্র পার্কিং করা রয়েছে অসংখ্য পিকাপ গাড়ী । সূত্র বলছে এসব গাড়ি পার্কিংকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন মোটা অংকের চাঁদাবাজি করছে চক্রটি। দিয়ে ১১ নং সড়কটির প্রবেদ্বারে তাকালে মনে হবে এটা যেন ভ্যান,পিকাপের স্থায়ী পার্কিং ইয়ার্ড রাস্তায় চলছে বিভিন্ন ধরনের পণ্য লোড আনলোডের কাজ। একজন ভ্যান চালক বললো এখানে ভ্যান রাখার জন্য টাকা দিতে হয় গোড়ায় গিয়ে খবর নেও।ডিএনসিসি মার্কেটটি গুলশান এলাকায় অতি জনপ্রিয় পাশে রয়েছে গুলশান শপিং কমপ্লেক্স এখানে সকল প্রকার পণ্য সামগ্রী কেনাকাটার সুযোগ মেলে।ডিএনসিসি মার্কেটটির নীচতলায় রয়েছে বিশাল ফার্নিচার সামগ্রীর দোকান। ফার্নিচার সামগ্রী সরবরাহকে কেন্দ্র করে পিকাপ চালকরা তাদের সুবিধার জন্য সড়কেই গাড়ি পার্কিং করে  রাখে।সরেজমিনে গিয়ে মার্কেটের পিছনের রাস্তায় দেখা গেলো অবৈধ ভাবে পার্কিং করা সারিবদ্ধ পিকাপ গাড়ির দৃশ্য। মার্কেটের দেয়াল ঘেঁষে ফুটপাথ  থেকে শুরু করে সড়ক পর্যন্ত  যেখানে সেখানে রাখা হয়েছে বিভিন্ন ধরনের ফার্নিচার সামগ্রী। এসব সামগ্রী সরবরাহের জন্য সড়ক দখল করে রাখা হয়েছে ছোট ও মাঝারি ধরনের পিকাপ গাড়িগুলো।এসমস্ত পিকাপ গাড়ি পার্কিং নিয়ে চাঁদা বাণিজ্য করতে গড়ে উঠেছে চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট । চাঁদাবাজ চক্রটি দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন স্তরের লোকজনকে ম্যানেজ করে সড়ক দখল করে গড়ে তুলেছে স্থায়ী পিকাপ স্ট্যান্ড।সড়কের পাশে রাখা অকেজো গাড়ীগুলো এখানে বসেই মেরামত করা হয় । গাড়িগুলো দিয়ে সড়ক দখল করায় রাস্তা সরু হয়ে সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ যানজট। বিশেষ করে অফিস সময়ে অসহনীয় যানজটের ভোগান্তির শিকার হতে হয় চাকুরী জীবীদের।ডিএনসিস পাকা মার্কেটের দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আখতারুজ্জামান খালাসির  কাছে মার্কেটকে কেন্দ্র করে এভাবে পিকাপ স্ট্যান্ড গড়ে ওঠার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমরা বিভিন্ন ভাবে চেষ্টা করছি এগুলোকে দখল মুক্ত করার জন্য।এই এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক পরিদর্শককে অসংখ্য বার বলেছি কিন্তু যেমনটা তেমনি থেকে যায়।সড়ক বন্ধ করে গাড়ি পার্কিংয়ের বিষয়ে   গুলশান -১ নং ট্রাফিক বক্স এর ইনচার্জ কামরুলকে মুঠোফোনে জানানো হলে তিনি তাৎক্ষণিক রেকার পাঠিয়ে ব্যবস্থা নিবেন বলে প্রতিবেদককে বলেন। কিন্তু তাকে অবগত করার প্রায় দেড় ঘন্টা পর্যন্ত পার্কিং স্থলে কোন ধরনের সার্জেন্ট বা রেকার গাড়ির কোন ধরনের দৃশ্য চোখে পড়েনি।প্রতিবেদক পূণরায় তাকে ফোন করলে তিনি জানান ৭ টি রেকার পাঠিয়েছি রেকার করার জন্য।তার কথার সত্যতা নিশ্চিত হতে ১১ নং সড়কটির পশ্চিম মাথা থেকে পূর্ব মাথার দিকে অগ্রসর হতে দেখা গেলো প্রায় অর্ধশত পিকাপসহ অন্যান্য গাড়ীগুলো সেই পূর্বের মতো সড়ক দখল করে পার্কিং করা রয়েছে।সড়কটির পূর্ব মাথায় একটি পিকাপ গাড়িতে রেকারের দৃশ্য চোখে পড়লো কিন্তু কোন সার্জেন্ট নেই আর অন্যান্য গাড়িগুলো খুব স্বাভাবিকভাবেই সড়ক জুড়ে পার্কিং করা রয়েছে। পরবর্তীতে আবার ফোন করা হলে তিনি আগামীকাল অর্থাৎ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ সকাল ১১ টার মধ্যে সড়কটি পুরোপুরি পার্কিং মুক্ত করবেন বলে আসস্ত করেন এবং চায়ের দাওয়াত দেন।তার নির্ধারিত দিনে সকাল থেকে ৩ টা পর্যন্ত সেই একই রকম দৃশ্য দেখা গেছে। আবার তাকে ফোন করা হলে তিনি ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলে জানান। বেশ কিছুক্ষণ পর সেই আগের দিনের মতো সড়কের প্রবেশদ্বারে একটি পিকাপে রেকার করা আর সমস্ত গাড়ীগুলো পার্কিং করা।মাঝ সড়কে দুইজন সার্জেন্ট এদিক ওদিক চলাচল করছে এবং মার্কেটে আগত একটি ব্যক্তিগত গাড়ীতে রেকার লাগিয়ে তাদের কাগজপত্র নিয়েছে।অথচ পুরো সড়ক জুড়ে পিকাপসহ অন্যান্য মালবাহী গাড়ীগুলো তাদের চোখের সামনে পার্কিং করা রয়েছে।মনে হচ্ছে অজানা কোন স্বার্থের জন্য হয়তো তারা সেগুলোকে দৃষ্টিতে নিচ্ছে না বা কোন প্রকার জরিমানা করতে ইচ্ছুক না।এর একটু সামনে একটি রেকার গাড়ির পাশে একটি প্রাইভেটকারে রেকার করা কিন্তু পাশেই কতগুলো পিকাপ গাড়ী পার্কিং করা যেগুলো চাঁদা উত্তোলন কারী করিম পাশে দাঁড়িয়ে তাদের চোখের সামনে থেকে খুব হাসি মুখে গাড়িগুলো ড্রাইভারদের সড়িয়ে নিতে বললো।অল্প সংখ্যক ড্রাইভার কিছু গাড়ি কিছুক্ষণের জন্য সড়িয়ে নেয় এবং সার্জেন্ট যাওয়া মাত্রই আবার সেখানে পার্কিং করে।সড়কে ঢুকতে রেকার করা প্রথম গাড়িটির লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে একজন আরেকজনকে বলতে থাকে বলেছিলাম মাসিক চুক্তি করে নেন শুনেন নাই। আমাদের গাড়িতো পাশে রয়েছে আমাদেরটা কি রেকার করেছে করে নাই তো।পরে সেই ব্যক্তি বললো তাহলে চলেন কথা বলি।এরপর তাদের সার্জেন্টদের সাথে কথা বলতে দেখা গেছে যাহার ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষণ করা হয়েছে।পিকাপ স্ট্যান্ডের স্বঘোষিত সভাপতি চাঁদাবাজ করিমের কাছে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন সবাইকে টাকা দিতে হয়।আমিসহ আরো দুই জন টাকা তোলে তবে আমি একটু বেশি উঠাই। গুলশান ১ নং ট্রাফিক বক্সের টিআই কামরুলকে টাকা দিতে হয় গুলশান থানার ওসি সহ কয়েকজনকে টাকা দিতে হয়।

...
Md. Delolwaor Hossain

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি


খুলনা বিভাগের সাংবাদিক, মুক্ত হাতে যারা লিখতে ভালোবাসেন তাদের জন্য সুখবর। বাংলাদেশের বহুল প্রচারিত, মিডিয়া অন্তুর্ভুক্ত জাতীয় দৈনিক সরেজমিনবার্তা পত্রিকায় খুলনা বিভাগীয় প্রধান , জেলা প্রতিনিধি , বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি পদে নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীগণ ০১৭১৫ ৯৫ ৯৩ ৪৪ এই নম্বর এ যোগাযোগ করুন।

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ