+

বিলুপ্ত ছিটমহলের নেতাকর্মীদের মাঝে প্রশংসাপত্র বিতরণ

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১১ দিন ১১ ঘন্টা ৩৬ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 680
...

বিলুপ্ত ছিটমহলের নেতাকর্মীদের মাঝে প্রশংসাপত্র বিতরণ 

হাসান জুয়েল
পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি

দীর্ঘ ৬৮ বছর অবহেলিত থাকার পর ২০১৫ সালের পহেলা আগস্ট ভারত ও বাংলাদেশের ১৬২ টি ছিটমহলের অধিবাসীরা ভারত সরকার ও বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার
ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নিজ নিজ দেশের নাগরিকত্ব,  সকল রাষ্টীয় সুবিধা এবং ছিটমহলের অবহেলিত নাগরিক নামটি থেকে মুক্তি লাভ করেন। 

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারতের ১১১ টি  ছিটমহলের অধিবাসীদের দুঃখ দুর্দশা, শোষণ বঞ্চনা থেকে মুক্তি ও অধিকার আদায়ের দাবিতে বিলুপ্ত ছিটমহল আন্দোলনের নেতা কবি গোলাম মতিন রুমি সে সময় নানা কর্মসূচি পালন করেন। এরই ফলশ্রুতিতে বিলুপ্ত ছিটমহল উন্নয়ন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি  সাবেক ভারত-বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কেন্দ্রীয় কমিটি ও সাবেক ছিটমহল ইউনাইটেড কাউন্সিল এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এই নেতার উদ্যোগে উক্ত সংগঠনের সিদ্ধান্তে ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীর অতীত মুক্তি ও' অধিকার প্রতিষ্ঠা আন্দোলন সংগ্রামে যারা অংশগ্রহণ করেছিলেন তাদের তালিকার কাজ শুরু করেন।
উক্ত সংগঠনের সভাপতি গোলাম মতিন একের পর এক সকল বিলুপ্ত  ছিটমহল সফরে সরেজমিনে স্থানীয় বিলুপ্ত ছিটমহল নেত্ববৃন্দের সহযোগিতায় তিনি অবদান রাখা নেতাকর্মীদের তালিকা প্রণয়ন করে তাদের মাঝে প্রশংসাপত্র বিতরণ করেন।  
গত ৩১ শে ডিসেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দে পঞ্চগড় জেলার বিলুপ্ত ৩৬ নং কাজল দীঘি ছিটমহলের নেতাকর্মীদের তালিকাকরণের কাজ সম্পন্ন করে তাদের হাতে প্রশংসাপত্র তুলে দিয়ে বিলুপ্ত ছিটমহল কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ফিরে যান এ নেতা। উক্ত তালিকা প্রণয়নের কাজে যারা সহযোগিতা করেছেন তারা হলেন পঞ্চগড় জেলার বিলুপ্ত ছিটমহলের নেতা মফিজার রহমান,  মোখলেছার রহমান,  সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।  নীলফামারীর মতিয়ার রহমান,  ফরিদুল ইসলাম প্রমুখ। কুড়িগ্রাম জেলার নেতা আলতাব হোসেন,  জাহিদুল ইসলাম, ও নুর ইসলাম প্রমুখ। লালমনিরহাট জেলার বিলুপ্ত ছিটমহলের নেতা মুকছুল.হোসেন,  রাবিউল ইসলাম, দুলাল হোসেন, হারুনর রশিদ প্রমুখ।  উক্ত ৪ জেলায় সর্বমোট ২৯৮ জন। এরমধ্যে লালমনিরহাট জেলায় বিলুপ্ত ৫৯ টি ছিটমহলে ১৩৭ জন,  পঞ্চগড় জেলায় বিলুপ্ত ৩৬ টি ছিটমহলে ৮৬ জন,  কুড়িগ্রাম জেলায বিলুপ্ত ১২ ছিটমহল ৫৩ জন এবং নীলফামারী জেলায় বিলুপ্ত ৪টি ছিটমহলে ২২ জন নেতাকর্মী।
সাবেক ছিটমহলের নেতা কবি গোলাম মতিনের নেতৃত্বে ছিটমহলবাসীর অধিকার আদায়ের জন্য বিভিন্ন আন্দোলন শুরু হয়।
২০০৫ সালে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সাবেক ১১১ টি ছিটমহলবাসীর মুক্তি ও অধিকার প্রতিষ্ঠার জোর আন্দোলন শুরু হয়। 

২০০৯ সালের দুই দেশের ছিটমহলবাসীর ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ার প্রচেষ্টায় তিনি ভারত বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করেন।  ২০০৯ সালের ১১ জুন জাতীয় মানবাধিকার সংগঠন কর্তৃক আয়োজিত নাগরিকত্ব,  মানবাধিকার,  মানবিক নিরাপত্তা বিবেচনায় ছিটমহলবাসীর জীবন শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক জাতীয় প্রেসক্লাব ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বৈঠকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ১১১ টি ছিটমহলের পক্ষে কবি গোলাম মতিন,  মোজারুল ইসলাম ও উকিল চন্দ্র বর্মন।  অপরদিকে ভারতের অভ্যন্তরে  থাকা বাংলাদেশি   ৫১টি ছিটমহলের পক্ষে  ইউনুস আলী হাফিজুল ইসলাম খোকা মিয়া সহ  সাতজন মিলে মোট ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল  ছিটমহল অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে সরকারের নিকট দাবী জানান।
 উক্ত ১১ জুনের চেতনায় ২০০৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর লালমনিরহাট ও নীলফামারী জেলা অভ্যন্তরে ভারতীয় ছিটমহলের নেতাকর্মীরা  ৪ নং বড় খেঙ্গির ছিটমহলে সর্বপ্রথম বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করলে এতে বিরল ইতিহাস সৃষ্টি হয়।


২০১২- ১৩ সালে ছিটবাসীর মুক্তি অধিকার আদায়ে লক্ষে ৬ দফার আন্দোলন হয়।  ২০১৪ সালের নিরপরাধ কারাবন্দী নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে একাধিক আন্দোলন হয়।   ২০১৫ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারি গোলাম মতিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় ৫ দফার দাবীতে কার্যকর আন্দোলন হয়।  ওই সময় ঢাকা সফররত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সাংবাদিকদের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে ছিটবাসীদের দাবি পূরণে রাজি হন।  এরপর দুই দেশের পার্লামেন্টের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ছিটমহলবাসীদের দাবি অনুযায়ী তাদের মুক্ত করা হয় ।
কবি মতিন আরো জানান ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসের মধ্যে আন্দোলনে অবদান রাখা নেতাকর্মীদের তালিকা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরসহ সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে পাঠানো হবে।
বিলুপ্ত  ছিটমহলের জননী সফল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনে মুজিব - ইন্দিরা নগরে একটি সভা সমাবেশ করবেন বলেও জানান তিনি ।  
এরপর বিলুপ্ত ছিটমহলের ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জ্ঞাপনে বঙ্গ ভবনে যাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন এই নেতা।

...
Md. Anwar Hossain Jewel(SJB:E037)
Mobile : 01717548594

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন
01868974512

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ