+

মাগুরার বাহারবাগ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দিন দিন বেড়েই চলছে অবৈধ দখল

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১৫ দিন ২০ ঘন্টা ৪১ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 1085
...

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মাগুরা সদর উপজেলার গোপালগ্রাম ইউনিয়নের বাহারবাগ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে দিন দিন অবৈধ দখল বেড়েই যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিদ্যালয় কতৃপক্ষ।

সরোজমিনে দেখা য়ায় বাহারবাগ মাধ্যমিক বিদ্যালয় খেলার মাঠের ৫ শতক ও রাস্তাসংলগ্ন বিদ্যালয়ের সামনের জায়গা দখল করে কিছু দোকানপাট দাঁড় করানো হয়েছে। এলাকাবসী বলেন এসব দখল ও স্থাপনা অবৈধ। কারণ জানতে চাইলে তারা বলেন আমরা দেখেছি ও শুনেছি এই সমস্ত দোকানপাট মালিকেরা এক সময় এই বিদ্যালয়ের জায়গা বলে তারা বিদ্যালয়কে ভাড়া দিয়েছে। এখন শুনছি এসব দখল করা জায়গা তদের মালিকানা। নাম বলতে অইচ্ছুক ষাট উর্দ্ধে ঐ এলাকার এক স্থানীয় বাসীন্দা বলেন স্কুলের বয়স প্রায় ৫২ বছর, আমরা সারাজীবন দেখেছি এই মাঠ স্কুল ব্যবহার করেছে। এমনকি আমি, আমার ছেলেপলে, নাতিপুতিও এই বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেছে। শুধু তাই নয় এটা আমাদের এই গ্রামের একমাত্র খেলার মাঠ, যাতে অত্র গ্রামের লোক বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করে তাছাড়া মেলা ও বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বাৎসরিক অনুষ্ঠান এবং ছেলে মেয়েরা এই মাঠে শরীরচর্চা করে। তা এখন কিছু ক্ষমতাশীল মানুষের হাতে যা অবৈধ দখলে বন্ধ প্রায় ।

এব্যাপারে অত্র বিদ্যালয়ের এডাপ্ট কমিটির সভাপতি ও অত্র ইউনিযনের চেয়ারম্যান রাজীব চৌধুরী জানান, ঐ গ্রামের মৃত হালিম শেখের ছেলে লিয়াকত আলী খাঁন সজীব বিদ্যালয়ের ৫ শতক খেলার মাঠ অবৈধভাবে দখল করে অর্ধ প্রাচীর করেছে। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক কতৃপক্ষ মাগুরা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ানের নিকট অবৈধ প্রাচীর সঠিক তদন্তপূর্বক উচ্ছেদ ও বিদ্যালয়ের সীমানা নির্ধারণের জন্য লিখিত অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে শত্রুজিতপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস সরোজমিনে তদন্ত করে লিয়াকত আলী খাঁন সজীবের অবৈধ দখল করা বিদ্যালয়ের ৫ শতাংশ জমি অপসারণ করতে বললেও অদ্যাবধি আজও তা অপসারণ করেনি। তাছাড়া তিনি আরো বলেন সজীবের এ অবৈধ কর্মকান্ড দেখে বিদ্যালয়ের রাস্তা সংলগ্ন আরো কিছু জমি অবৈথভাবে দির দিন দখল করছে বিভিন্ প্রভাবশালী মহল।

এবিষয়ে লিয়াকত আলী খাঁন সজীবের সাথে কবথা বললে ‍তিনি জানান এ জমি তার বাবার সম্পত্তি, বাংলাদেশ সরকার “খ” তফসিল বর্ণিত ভিপি সম্পত্তি বাতিল করায় মোঃ লিয়াকত আলী খান সজীব দিং সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাগুরা সদর, মাগুরা এর কার্যালয়ে ২৩৭০/৯ম-১ম/১৬-১৭ নং নমজারী কেসের মাধ্যমে আরএস ১৯৩ নং বাহারবা মৌজার খতিয়ান হতে, ১/১ নং খতিয়ান হতে ২৫২৮ নং দাগের  ০.১৪ একর জমির সৃজিত ১৩৩২ নং খতিয়ানে রেকর্ড সংশোধন করে, তার বলেই সে বিদ্যালয়ের পাঁচ শতক খেলার মাঠ দ্খল করেছে। শত্রুজিতপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস কতৃক তার এ প্রাচীর অপসারণ করেত বলছে কিনা তা জানতে চাইলে তিনি বলেন তাকে ইউনিয়ন ভুমি অফিস লিখিতভাবে কোন জবাব দেননি। তবে সে মৌখিকভাবে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে শুনেছে। তিনি আরো বলেন যেখানে সে সরকারীভাবে সংশ্লিষ্ট সদর ভুমি অফিসের মাধ্যমে নামজারী কেসের মাধ্যমে জমির মালিক হয়েছে সেখানে আবার তারাই অবৈধ বলছে এটা তার বোধে আসেনা। তিনি বলেন সরকারী জমি হলে তাকে লিখিতভাবে জানালে সে প্রাচীর সরাতে বাধ্য।

শত্রুজিতপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সহকারী নায়েব মোজাম্মেল হোসেনের কাছে তাদের অফিস থেকে, মাধ্যম মাগুরা সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস হয়ে সদর উপজেলিা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট পাঠানো লিখিত তদন্ত প্রতিবেদনে সজীবের অবৈধ প্রাচীর অপসারণের কথা উল্লেখ করে, সজীব তা না সরালেও  কেন সজীবকে লিখিতভাবে একটি তদন্ত প্রতিবেদন পাঠানো হয়নি তা জানতে চাইলে সে কোন যথার্থ উত্তর দিতে পারেনি?

অন্যদিকে বিদ্যালয়ের রাস্তা সংলগ্ন কিছু জমি যারা দখল করেছে তারা বলেন, তারা একসময় না জেনে স্কুলকে দোকান ঘর ভাড়া দিয়েছে এখন তারা কাগজপত্রে তাদের জমিজোমা দেখে আর স্কুলকে ভাড়া দেননা ও নিজেদের সম্পত্তি বলে মনে করেন। তাদের কারো আদলতের ডিক্রি ও হাল রেকর্ড আছে বলে বলে জানান।

বিদ্যালয়ের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুকুমার কুমার বিশ্বাস বলেন, এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ানের নিকট লিখিত অভিযোগপত্র দাখিল করলে সরোজমিনে জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান ও সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা দেখে গেছেন এবং  এই অবৈধ প্রাচীর সজীব খানকে অপসারণ করতে বললেও অদ্যাবধি তা সরেনি। তারপর থেকে আমরা আরো একাধিক বার উপজেলা প্রশাসনকে জানালেও এর কোন সুরাহ হয়নি।

এ বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসক ড, আশরাফুল আলমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিষয়টি দেখব ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সুফিয়ান বলেন, করোনকালীন সময়ে বিষয়টি নিয়ে তেমন কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

এলাকাবাসীর দাবী বিদ্যালয়ের মাঠ বাঁচাতে হলে অবশ্যই প্রশাসনের হস্তক্ষেপ জরুরী। 

...
Md. Shaharul Islam(SJB:E022)
Mobile : 01734457677

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন
01868974512

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ