২০শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৬ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:৫৬

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আইসিসিতে তদন্ত শুরু

মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে ব্যাপক সামরিক অভিযানে গণহত্যা, যৌন সহিংসতা, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও যুদ্ধাপরাধ করায় দেশটির বিরুদ্ধে প্রাথমিক তদন্ত শুরু করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি)। এই নির্যাতন থেকে বাঁচতে প্রাণভয়ে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে আশ্রয় নেওয়ার পর এই নিপীড়ন নিয়ে এটিই কোনো পূর্ণাঙ্গ তদন্তের উদ্যোগ বলে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে।

হেগভিত্তিক আইসিসির সদস্য না হলেও মিয়ানমারের মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্তের এখতিয়ার এ আদালতের রয়েছে বলে দুই সপ্তাহ আগে রুল জারি করেছিলেন বিচারকরা। কারণ বাংলাদেশ হচ্ছে আইসিসির সদস্য। এমন সিদ্ধান্ত আসার ধারাবাহিকতায় এ তদন্ত শুরু হল।

আদালতের কৌঁসুলি ফাতো বেনসুদা মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে যেভাবে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে,তাতে যুদ্ধাপরাধ বা মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে কি না-সে বিষয়ে প্রাথমিক তদন্তে হাত দিয়েছে তার দফতর।

রোহিঙ্গাদের বিতাড়নে মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটনের জন্য মিয়ানমারের বিচারের এখতিয়ার হেগের আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের রয়েছে বলে সিদ্ধান্ত আসার ধারাবাহিকতায় এই তদন্ত শুরু হল।

আইসিসির এই প্রাথমিক তদন্তের পর একটি আনুষ্ঠানিক তদন্ত হবে। এর পরই অপরাধীদের অভিযুক্ত করা হবে।

এদিকে, একই দিন জাতিসংঘের তদন্তকারীরা বলেছেন, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সেনাবাহিনী এমন অপরাধ করেছে, যার গভীরতা মাপা কঠিন। কাজেই তাদের গণহত্যার জন্য বিচারের মুখোমুখি করা উচিত।

অন্যদিকে, আইসিসির এই তদন্তের পথ ধরে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর দমন অভিযানের পূর্ণাঙ্গ তদন্তের পথ খুলতে পারে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

প্রকাশ :  সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৮ ৬:২৯ পূর্বাহ্ণ