২০শে মার্চ, ২০১৯ ইং | ৬ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:৪৭

হাটহাজারীতে সরকারী জায়গায় নির্মানাধীন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ : দখলমুক্ত কোটি টাকার সম্পদ

মো.আলাউদ্দীনঃ

হাটহাজারীতে শহীদদের গণকবর সংলগ্ন সওজের জায়গা দখল করে নির্মানাধীন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। শুক্রবার (১১ জানুয়ারী) সকাল এগারটা থেকে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.রুহল আমিনের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে রাতারাতি নির্মান করা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে সড়ক ও জনপদ বিভাগের প্রায় কোটি টাকার সম্পদ পুনরুদ্ধার করা হয়।

সূত্রে জানা গেছে, নাজিরহাট পুরাতন বাসস্টেশনে ৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদারবাহিনীর নির্মম হত্যাযজ্ঞ ও মুক্তিযুদ্ধের নীরব সাক্ষী গণকবর ও বধ্যভূমি সংলগ্ন সওজের জায়গা দখল করে ৪/৫টি সেমিপাকা দোকান তৈরি করছিলেন এক ভূমি খেকো । চারদিকে টিনের ঘেরা দিয়ে রেখেই রাতারাতি ভরাট করে সেমিপাকা দোকান নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল চক্রটি। স্থানীয়দের অভিযোগ, সওজের চরম গাফিলাতির কারনে ভূমিদস্যুরা এভাবে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সরকারী কোটি কোটি টাকার সম্পদ দখল করে নিচ্ছে। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সওজ এবং ভূমি অফিসের কয়েকজন অসাধু ব্যক্তিদের সাথেও এসব ভূমিদস্যুদের আতাত রয়েছে। আর সেসব অসাধু ব্যক্তিদের মদদে চলছে সরকারী এসব সম্পদ দখলের মহোৎসব।

উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্বদানকারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.রুহল আমিন জানান, অভিযানে সওজের প্রায় কোটি টাকার সম্পদ দখলমুক্ত করে পুনরুদ্ধার করা হয়েছে। অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

উচ্ছেদ অভিযানের সময় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিয়াজ মোরশেদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মোঃ নুরুল আলম,ডেপুটি কমান্ডার মোঃ হোসেন মাস্টার,সদস্য আবু তালেবসহ অনেক মুক্তিযোদ্ধা, মডেল থানা পুলিশের একটি দল,উপজেলা সহকারী (ভুমি) কমিশনারের সার্ভেয়ার,কাটিরহাট ভুমি অফিসের তহসিলদার রুপম দে,ফরহাদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশ :  জানুয়ারি ১১, ২০১৯ ৭:৩৬ অপরাহ্ণ