২০শে মার্চ, ২০১৯ ইং | ৬ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:০১

মহাপ্লাবনে আবারও ডুববে পৃথিবী, আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের

ভঙ্গুর হয়ে পড়েছে কুমেরুর জলবায়ু। দ্রুত গলে যাচ্ছে বরফের চাঙর। সোয়া লাখ বছর আগে একই কারণে মহাসাগরের জলস্তর ৩০ ফুট উপরে উঠলেও এবার সেটি ছাড়িয়ে যাবে। বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা, মহাপ্লাবনে মহাসাগরগুলোর জলস্তর কমপক্ষে ৭০/৮০ ফুট উঁচু হবে! যা প্রায় ৬/৭ তলা বাড়ির সমান।

ওরেগন স্টেট ইউনিভার্সিটির ক্লাইমেট সায়েন্স বিভাগের হালের একটি গবেষণায় ভবিষ্যতে এমন ভয়াবহ অশনি সংকেতের তথ্য জানানো হয়েছে। গবেষণায় বলা হয়েছে, পার্থক্য শুধু এক জায়গায়।

সেই সময় কুমেরুর বরফের বিশাল বিশাল চাঙরগুলো গলে যাওয়ার পিছনে মানবসভ্যতার কোনো হাত ছিল না, একেবারেই প্রাকৃতিক। আর এবার যে ভয়াবহ ঘটনা ঘটতে চলেছে তা আমাদের জন্যই, উষ্ণায়নের দৌলতে। যে ঘটনা আগামী ১০ বা ৫০ বছরের মধ্যে ঘটতে পারে। এমনকি ৫০০/৭০০ বছরের (সঠিক হিসেবে ৪৭৫ বছর) মধ্যে পৃথিবীকে ডুবিয়ে দেওয়ার মতো মহাপ্লাবনের আশঙ্কা রয়েছে অন্তত ৭০ শতাংশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাইমেট সায়েন্স বিভাগের সিনিয়র প্রফেসর আন্দ্রেজ কার্লসনের নেতৃত্বে গবেষকদলে রয়েছেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়েরই আরও দুই অধ্যাপক। দু’জনই অনাবাসী ভারতীয়। একজন দক্ষিণ ভারতী, সিদ্ধার্থ রঙ্গনাথন। অন্যজন বাঙালি, দেবযানী দত্ত ভট্টাচার্য। গবেষণাপত্রটি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান-জার্নাল ‘সায়েন্স’-এ প্রকাশিত হয়েছে।

গবেষকদের অন্যতম সিদ্ধার্থ রঙ্গনাথন ও দেবযানী দত্ত ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, ‘আমরা খুব দূর ভবিষ্যতের কথা বলিনি। কারণ, অ্যান্টার্কটিকার বরফের বিশাল বিশাল চাঙরগুলো যে সেই ভয়াবহ ভবিষ্যতের দিকেই এগিয়ে চলেছে, তার আভাস মিলতে শুরু করেছে দেড়/দু’দশক আগে থেকেই।’

৫০ বছরে সেই আশঙ্কা বাড়বে ৭০ শতাংশ
গবেষকরা দেখেছেন, গত দেড় থেকে দু’দশক ধরে যে গতিতে গলে গিয়ে পাতলা হয়েছে তাতে কুমেরুর পশ্চিম প্রান্তের বরফের চাঙরগুলো (ওয়েস্ট অ্যান্টার্কটিকা আইস শিট) আরও দ্রুত ও বেশি পরিমাণে গলে যাবে। এমনকি আগামী ৩০ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে সেই আশঙ্কা বেড়ে যাবে আরও ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ।

শতাব্দীতে ১০ ফুট করে উঠবে মহাসাগরের জলস্তর
গবেষণা এও বলা হয়েছে, মহাসাগরগুলোর জলস্তর প্রতি শতাব্দীতে ৮ থেকে ১০ ফুট করে উঠছে ও উঠবে। মানে, ৮ শতাব্দীর মধ্যে আরও ৮০ ফুট উঠবে। অর্থাৎ, ২৮০০ সালের মধ্যেই পৃথিবীতে সেই মহাপ্লাবন হবে। আর সেই ‘হিমশৈলে’র চূড়াটা দেখা যাবে ৫০০ বছরের (২৫০০ সাল) মধ্যেই।

কুমেরুতে গত ২৫ বছরে ৩ লাখ কোটি টন বরফ গলেছে
গাঁধীনগর আইআইটির অধ্যাপক বিক্রান্ত জৈন জানিয়েছেন, গত ২৫ বছরে অ্যান্টার্কটিকায় ৩ লাখ কোটি টনেরও বেশি বরফ গলেছে। হালের গবেষণা দেখা গেছে, সেই বরফ গলে যাওয়ার হার বেড়ে গত দেড় দশকে ৩ গুণ হয়েছে। ফলে, দেড় লাখ বছর আগেকার সময় থেকে এখন পর্যন্ত বাড়তি ২ কোয়াড্রিলন (এক-এর পর ১৫টি শূন্য বসালে যে সংখ্যা হয়, তাকে বলে এক কোয়াড্রিলন) গ্যালন জল পৃথিবীর মহাসাগরগুলোতে ঢুকেছে। যার জেরে আরও ফুলে-ফেঁপে উঠেছে মহাসাগরগুলো।

প্রকাশ :  ডিসেম্বর ২৯, ২০১৮ ৪:৪৭ অপরাহ্ণ