১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৩৪

“মহিলা যদি বৃদ্ধ হয় তবে তার সঙ্গে মুসাফা করা যেতে পারে”- আহমদ শফী     

মো.আলাউদ্দীনঃ 
হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা আহমদ শফী ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি ও সেবামূলক সংগঠন আল-আমিন সংস্থার তিন দিনব্যাপী তাফসির ও কেরাত মাহফিলে বলেছেন,”মহিলা যদি বৃদ্ধ হয় তবে তার সঙ্গে মুসাফা করা যেতে পারে”। এ সময় হেফাজত আমির বিতর্কিত মাওলানা সাদের অনুসারীদের বলেন, মাওলানা সাদের মনগড়া তাফসির এবং আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আকিদা-বিশ্বাসবিরোধী বয়ান সম্পর্কে বিশ্বের শীর্ষ আলেমরা ফতোয়া দিয়েছেন। তার অনুসরণ বৈধ নয় বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এরপরও যারা তার অনুসরণ করছেন, বাংলাদেশে তার পক্ষে কাজ করছেন তাদের বলব, আপনারা তওবা করুন। আলেমদের দেখানো পথে দাওয়াতে তাবলিগের মেহনত করুন।

শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ৮টার দিকে হাটহাজারী পার্বতী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ময়দানে হাটহাজারী মাদ্রাসার মুহাদ্দিস আল্লামা শেখ আহমদের সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আহসান উল্লাহর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উত্তর চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি ও সেবামূলক সংগঠন আল-আমিন সংস্থার তিন দিনব্যাপী তাফসির ও কেরাত মাহফিলের সমাপনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন,সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত ‘শোকরানা মাহফিলে’ আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুসাফা করিনি। আমার নামে বদনামি করছে বলেও অভিযোগ করেছেন হেফাজত ইসলামের আমির আল্লমা আহমদ শফী। আমি মাথার ওপর কাপড় দিয়ে মঞ্চে বসে ছিলাম। এ সময় প্রধানমন্ত্রী একবার আমার দিকে এসে অন্যদিকে চলে যায়। আবার পুনরায় এলে আমি আঙুল দিয়ে ওনাকে ওদিকে চেয়ার আছে বসার আহ্বান জানাই। এ সময় তার হাতের সঙ্গে আমার আঙুল লেগে যায়।

মাহফিলে তিন পর্বের অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা সলিমুল্লাহ ও মাওলানা আনাস মাদানী। এতে বয়ান করেন মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, মাওলানা আব্দুল বাসেত খান সিরাজি, মাওলানা ইসমাঈল খান, ড. নূরুল আবছার ও মুফতি রাফি বিন মুনির প্রমুখ।

প্রকাশ :  ডিসেম্বর ৮, ২০১৮ ১০:০০ পূর্বাহ্ণ