১০ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:৫১

হাটহাজারীতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান

::মো.আলাউদ্দীন,হাটহাজারী::

হাটহাজারীতে উপজেলা প্রশাসনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে প্রায় আঠারো বছরেরও অধিক সময় ধরে দখল করে রাখা সরকারী প্রায় অর্ধকোটি টাকার সম্পদ পুনরুদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও পৌর প্রশাসক এবং ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমিন এ অভিযান পরিচালনা করেন।

সূত্রে জানা যায়, সদরের হাটহাজারী বড় মাদ্রাসার উত্তর পার্শ্বে পৌরসভার শাহজালাল পাড়া এলাকা সংলগ্ন মরা ছড়ায় দীর্ঘ প্রায় দেড় যুগ ধরে ঐ এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি গত ২০০৬ সাল থেকে মরা ছড়ার সরকারী সম্পদ দখল করে ছড়ার উপরে নিয়ম বর্হিভুত ভাবে পাকা বসত ঘর তৈরী করে রাখে। ফলে ছড়াটির স্বাভাবিক পানি নিষ্কাশনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়  যার কারনে পৌর সদরে অল্প বৃস্টিতেই হাটু পরিমান আবার কোথাও কোথাও কোমর পরিমান পানি উঠে যেতে দেখা গেছে।
সম্প্রতি দায়িত্বভার গ্রহন করা ইউএনও রুহুল আমিন বিষয়টা অবগত হয়ে যোগদানের মাত্র তিন দিনের মাথায় এ অভিযান পরিচালনা করে অবৈধভাবে নির্মিত দুটি বসত ঘর ভেঁঙ্গে দেন। এ অভিযানের ফলে সরকারী প্রায় অর্ধকোটি টাকার সম্পদ পুনরুদ্ধার হয়েছে বলেও সূত্রে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে  উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও পৌর প্রশাসক এবং ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমিন বলেন, এ এলাকায় ড্রেন নির্মাণে পৌরসভা ১ কোটি ৭৮ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্প নেয়া হয় কিন্তু সেখানে প্রভাবশালীদের অবৈধ স্থাপনার কারণে সেটি বাস্তবায়ন সম্ভব হচ্ছিলো না। জনগনের স্বার্থে সেসব অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে,এখন সাড়ে ৭ মিটার প্রস্থ ও ৬০০ মিটার দৈর্ঘ্যের ড্রেনটি নির্মাণে আর কোনো বাধা রইলনা। শ্রীঘ্রই কাজও শুরু করা হবে।সরকারি জায়গা কেউ দখল করে রাখতে পারবেনা,অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে এলাকার তথা হাটহাজারীবাসীর স্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।
প্রকাশ :  সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ ৩:২৩ অপরাহ্ণ