১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৩৯

বিএসকেএস এর যুগ্ন- মহাসচিব মান্নান ভূঁইয়াকে হত্যার হুমকী

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নারায়ণগঞ্জ অনলাইন প্রেসকাবের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থা -বিএসকেএস’র কেন্দ্রীয় যুগ্ন- মহাসচিব, দৈনিক দেশের আলো পত্রিকার ষ্টাফ রিপোর্টার এম এ মান্নান ভূঁইয়াকে চি‎িহ্নত মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীরা আবারও হত্যার হুমকী দিয়েছে। এই ঘটনায় হুমকী দাতাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা ও সাংবাদিক মান্নান ভূঁইয়ার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সুপারের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থার কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, আজ বিকালে সংস্থার এক বিজ্ঞপ্তিতে নেতৃবৃন্দ নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মহোদয় কে দ্রুত চিহ্নিত আসামীদের গ্রেপ্তার পূর্বক দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী সহ তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন পশ্চিম আইলপাড়া এলাকার চি‎িহ্নত ছিচকে সন্ত্রাসী ও মাদক বিক্রেতা রনি এবং তার ভাই আলাউদ্দিন ও সালাউদ্দিন গং দীর্ঘদিন যাবৎ সাংবাদিক ও সমাজকর্মী মান্নান ভূঁইয়া ও তার পরিবারকে বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে হয়রানী করে আসছিল। গত ২৫ সেপ্টেম্বর সকাল ৬টা ১০ মিনিটে (শেষের ডিজিট ৯৬২৬) নাম্বার থেকে মান্নান ভূঁইয়ার মোবাইল নাম্বারে ফোন দিয়ে গুম ও খুনের হুমকী প্রদান করে এবং মিথ্যা মামলা মোকদ্দমা দিয়ে হয়রানী করার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। হুমকী দাতা আরো বলে এতোদিনে তর কবরে দুববা জালাইয়া যাইতো। আলাউদ্দিন ও তার ভাইয়েরা তোকে আরো আগেই মাইরা ফালাইতো। তর মাইয়্যা দুইটা এতিম হইতো। এখন তুই আর বাঁচবি না। এই ঘটনার পর পরই সকালে ও বিকেলে আলাউদ্দিন, সালাউদ্দিন ও ছিচকে সন্ত্রাসী রনি প্রকাশ্যেই মান্নান ভূঁইয়াকে মারধর করার চেষ্টা করে। মারধর করতে না পেরে মান্নান ভূঁইয়ার পরিবারের সদস্যদের জীবননাশসহ বাড়ীঘর ভাংচুর করার হুমকী দেয়। ঘটনার বর্ণনা উল্লেখ করে ঐদিনই সাংবাদিক মান্নান ভূঁইয়া বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামী করে পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এছাড়াও আসামীদের বিরুদ্ধে সম্প্রতি সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রীও তিনি করেছেন। ২৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে পাঠানটুলী কবরস্থান রোডে সালাউদ্দিন সহ আরো কয়েকজন সংঘবদ্ধ হয়ে মান্নান ভূঁইয়ার পথরোধ করে মিথ্যা অপপ্রচার করে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন অভিযোগ এবং মামলা মোকদ্দমা দিয়ে হয়রানী করবে বলে হুমকী দেয়। এছাড়াও হুমকী দাতারা আরও বলে, তরে যারা খুন করতে চাইছিলো এখন তাদের বাসায়ই যাইতাছি। তরে ক্যামনে সাইজ করতে হয় আমাগো জানা আছে। এই ঘটনায় সাংবাদিক মান্নান ভূঁইয়া বলেন, বর্তমানে আমি ও আমার পরিবারের সকল সদস্যদের নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন যাপন করছি। আমাকে যারা হত্যা করতে চেয়েছিল সেই হত্যা চেষ্টার মামলার কয়েকজন আসামীসহ স্থানীয় কুচক্রী মহল রনি, সালাউদ্দিন ও আলাউদ্দিনকে উসকে দিচ্ছে। আমার এবং আমার পরিবারের যদি কোন ক্ষয়-ক্ষতি হয় তাহলে আমার হত্যাচেষ্টা মামলার কয়েকজন শীর্ষ গডফাদার আসামী এবং উল্লেখিত বিবাদীরা দায়ী থাকবে বলে জানান।

প্রকাশ :  সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ ৬:০৯ অপরাহ্ণ