+

বগুড়ার শেরপুরে নেসকোর অফিসে বসে মনগড়া বিদ্যুত বিল \ গ্রাহক ভোগান্তি চরমে!

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ২ দিন ২ ঘন্টা ৫১ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 870
...

স্টাফ রিপোর্টার:মোঃ মাহিদুল হাসান (মাহি) বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় নেসকোর প্রায় ৩৫ হাজার গ্রাহক রয়েছে নেসকোর একটি সূত্র জানায়। এর মধ্যে অনেক গ্রাহকেরই আগস্ট মাসের বিদ্যুৎ বিল নিয়ে অসন্তোষ বা দ্বিধান্বিত রয়েছে। চায়ের দোকানে বা পরিচিত দুই চারজন লোক এক জায়গায় হলেই শুরু হয় আনাগোনা, প্রসঙ্গ বিদ্যুত বিল। অধিকাংশ গ্রাহকেরই মতামত বিদ্যুতের বিল বেশি করা হয়েছে, বিদ্যুৎ বিলের কাগজ দেখে মনে হয় মিটার রিডিং দেখা হয়নি। অফিসে বসে মনগড়া ভাবে তৈরি করা হচ্ছে বিদ্যুত বিল, এই আলোচনা এখন সবত্র।  এইসব লোকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, জুলাই মাসে যে গ্রাহকের এক হাজার টাকা বিল এসেছে, আগস্ট মাসে তা বাড়িয়ে ১ হাজার ৫০০ টাকায় দাঁড়িয়েছে। আবার অনেকের ক্ষেত্রে হয়েছে তার উল্টো। পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের জগন্নাথ পাড়ার একজন ভাড়াটিয়া এই প্রতিবেদককে জানান, (ব্যবহৃত মিটার নং ১৩০৭০৭৬) গত জুলাই মাসে নেসকো আমাকে প্রায় দ্বিগুণ বিদ্যুত বিল করে দিয়েছে, অথচ আমি যে পরিমাণ বিদ্যুত ব্যবহার করেছি তাতে জুলাই মাসের বিদ্যুত বিল মিনিমাম বা তার চেয়ে একটু বেশী আসার কথা, কারণ গত জুলাই মাসে আমার বাসায় কেউ না থাকায় শুধু রাতে একটি ফ্যান চলেছে। কিন্তু যখন বিদ্যুত বিলের কাগজ পেলাম তখন দেখলাম সচারাচর যা বিল দেওয়া হয় তার দ্বিগুণ বিল করে দেওয়া হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, আমি আমার বিদ্যুত বিলের কপি নিয়ে শেরপুর নেসকো অফিসের উপ- প্রকৌশলী রানার সাথে কথা বলে ছিলাম। আমি তাকে বলে ছিলাম মিটার রিডিং না দেখে মিটার রিডিং রাইটার রিডিং লেখেছে এটা আমার অভিযোগ নয়, হয়ত বা মিটার রিডিং দেখেই বিল করা হয়েছে। কিন্তু বিদ্যুত ব্যবহার না করেও কেন মিটারে এতো রিডিং উঠছে, এটার কারণ কি? তার জবাবে তিনি বলেন আপনার বাসাবাড়ির ওয়ারিংয়ের কোন সমস্যা আছে কিনা তা ওয়ারিংয়ের মিস্ত্রী ডেকে চেক করেন। নেসকোর বেশ কয়েকজন বিল বিড়ম্বানার ভুক্তভুগী জানান, বৈশ্বিক করোনা মহামারির অজুহাতে নেসকো কর্তৃপক্ষের মিটার রিডিং রাইটাররা মিটারের রিডিং না দেখেই অফিসে বসে মনগোড়া বিল করে দিচ্ছে বলে নেসকো গ্রাহকদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট্য নেসকোর উর্দ্ধোতন কর্মকর্তাদের তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে।  এবিষয়ে জানার জন্য নেসকোর নির্বাহী প্রকৌশলী মো: আব্দুল খালেক এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, করোনা কালিন সময়ে বিদ্যুত বিল নিয়ে গ্রাহকদের মাঝে একটু অসন্তোষ আছে। তার পরেও আমি আমার লোকজন দিয়ে চরম পর্যবেক্ষণে রেখেছি। তারপরও ভুলভ্রান্তি হতে পারে। যদি কোন গ্রাহকের বিল নিয়ে সমস্যা হয়, তাহলে তিনি তার ব্যবহৃত মিটারের চলতি রিডিংয়ের সঙ্গে মিলিয়ে দেখবেন। অসামঞ্জ্যতা দেখা দিলে দয়া করে বিদ্যুত বিলের কপি নিয়ে আমাদের অফিসে আসলে তা আমরা অবশ্যই সংশোধন করে দিব।

...
Md. Mahidul Hasan(SJB:E9999)
Mobile : 01713685176

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন
01868974512

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ