+

বাবার নারী লিপ্সার কারণে সামাজিকভাবে হেয় একটি পরিবার

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১২ দিন ২০ ঘন্টা ২০ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 585
...

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারি ইউনিয়নে হাবিবুর রহমান (হবি) বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন রহিমা নামে তার স্ত্রী। আজ সরেজমিনে রহিমার বাড়িতে গিয়ে ঘটনা বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাবাজী গত ৪৬ বছর আগে হাবিবুর রহমান হবির (৭৫) সঙ্গে আমার বিয়ে হয়। তাঁর ঔরষে আমার ১ ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম হয়। এরমধ্যে ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম প্রধান (৪৪) বর্তমানে অত্র ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য। তিনি উল্লেখ করেন হাবিবুর রহমান হবি একজন লম্পট, দুশ্চরিত্র ও পর নারী লোভী। আমাকে বিবাহ করিয়া তাহার সংসারে নিয়ে আসার পর আমার মতের বিরুদ্ধে এই লম্পট আরো ৭ টি বিবাহ করে। তাহাদের মধ্যে ৩ জন স্ত্রীকে ইতিপুর্বেই ডিভাের্স প্রদান করে এবং ১জন স্ত্রী মৃত্যু বরন করেন। অপর ৩ জন স্ত্রী বর্তমান আছে এবং তাহাদেরকে বিভিন্ন স্থানের বিভিন্ন বাড়িতে রাখিয়া ভরন পােষন বহন করিয়া আসিতেছে। আমার স্বামী হাবিবুর রহমান ধারাবাহিক ভাবে বিবাহ করার সময় আমি তাহাকে বাধা প্রদান করিলে তিনি আমাকে সাংসারিক ছােট খাটো বিষয়াদি লইয়া বিভিন্ন সময় আমার উপর শারীরিক মার-ডাং ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করিয়া আসিতেছিল। সম্প্রতি দেখা সাক্ষাত ও মােবাইল ফোনে কথা বার্তার মাধ্যমে মােছাঃ সামছুন্নাহার মিনি (২৭), পিতা- মৃতঃ আব্দুল গনি, সাং-উফারমারা (প্রধান পাড়া), থানা- পাটগ্রাম, জেলা- লালমনিরহাট-এর সহিত পরকিয়া সম্পর্ক গড়ে তােলে। হাবিবুর রহমান সামছুন্নাহারকে ৯ ম স্ত্রী হিসেবে বিবাহ করার পায়তারা করিয়া আসিতেছে। এবং সামাজিকভাবে আমাদের পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করছে। আমার স্বামীর এমন ঘৃণ্য কান্ডে সমাজ আমাদের পরিবারকে বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়াছে। আমরা সকলে তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করলেও সে কোনভাবেই ভালো পথে আসছে না। আমার পরিবার সহ আমার স্বামীর অন‍্যান‍্য স্ত্রীর সন্তানের সমাজের মানুষজন খারাপ চোখে দেখে আসছে। আমাদের নাতি নাতনী বড় হয়েছে। কয়েকজনের বিয়েও হয়েছে কিন্তু তার এখনো বিয়ের শখ মিটেনি। হাবিবুর রহমান হবির বড়ভাই আব্দুর রহমান এবিষয়ে বলেন, ছোটভাইকে ভালো করতে অনেক চেষ্টা করেছি কিন্তু সে আমাদের পরিবারের কাউকে মানেনা। সে একটা নারী লোভী। ওর জন্য আমাদের পরিবারের মানসম্মান শেষ হয়ে গেছে। ঘরে ৪ টি স্ত্রী ওর রয়েছে তারপরেও সে আরো একজনের সঙ্গে পরকীয়ায় লিপ্ত হয়েছে। আমার জানামতে সে দশটির অধিক বিয়ে করেছে। ওর জন্য সমাজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। হবির চার বউ বর্তমানে জীবিত রয়েছে এরপরও সে আরো বিয়ে করায় সমাজ আমাদের পরিবার খারাপ চোখে দেখছে সামাজিকভাবে আমরা খুবই চাপে আছি। আমি ওর বিচার চাই। অভিযুক্তের বড় ছেলে বুড়িমারি ইউনিয়ন পরিষদ ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা ভাইয়েরা নিজেরাও মেয়ে বিয়ে দিয়েছি, কিন্তু আমাদের বাবা এখনো বিভিন্ন নারীর আসক্ত থাকায় আমরা সমাজে কথা বলতে পারিনা। আমি জনপ্রতিনিধি, বাবার এমন ঘৃণ্য কান্ডে সমাজের চোখে কতটা খারাপ অবস্থায় আছি তা বোঝানো মুশকিল। বুড়িমারি ৬ নং ওয়ার্ড ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি সেরাজুল ইসলাম বলেন লোকটা পরিবারটির মানসম্মান শেষ করেছে। একটা নয় দুইটা ১০ বিয়া করার পরও বুড়ো বয়সে পরকীয়া করছে। আমরা সমাজে এমন ঘৃণ্য ঘটনার সাক্ষী হতে পারিনা। আমরা এ ন্যক্কারজনক ঘটনার নিন্দা জানাই। হাবিবুর রহমান হবির মেয়ে জামাই জাহেদুল ইসলাম বলেন আমার শশুরের এমন লজ্জাজনক ঘটনায় সমাজে আমরা মুখ দেখাতে পারছিনা। তাঁর নাতি পুুতি বিয়ে হয়েছে কিন্তু তিনি এখনও বিয়ের গান ছাড়েনি। এবিষয়ে বুড়িমারি ৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তোবারক হোসেন বলেন, হবি সমাজে বিশঙ্খলা সৃষ্টি করে আসছে। এই সভ্য সমাজে একটি মানুষ কিভাবে এতোগুলো বিয়ে করে। তাঁর বর্তমানে চারটি বউ আছে, সে আরো একজনকে বিয়ে করেছে বলে শুনেছি। আমরা হবির নারী লিপ্সা ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। এলাকায় এমন জঘন্যতম মানুষ থাকলে দিনদিন সমাজ নষ্ট হয়ে যাবে। আমরা সামাজিকভাবেও তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। কামারের হাট এলাকার স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা জানান লোকটা নারী লোভী। বয়স বুড়ো হলেও নারী ছাড়া তিনি কিছুই বোঝেন না। বুড়িমারি ইউপি চেয়ারম্যান নেওয়াজ নিশাতের কাছে এবিষয়ে বলেন ঘটনা সত্য। তিনি (হাবিবুর রহমান হবি) প্রতিনিয়ত সমাজে ঘৃণ্য ঘটনার জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন। সে ১০ টির বেশি বিয়ে করেছে। একটা মানুষের চারটি বউ বর্তমানে ঘরে থাকার পরও তিনি কিভাবে পরকীয়া করেন। আমরা সমাজের সকলে মিলে তাকে ভালো করার চেষ্টা করেছি কিন্তু তিনি আমাদের কথা শোনেন না। কিছুদিন আগেও আমরা এবিষয়ে মিমাংসার চেষ্টা করেছি কিন্তু তিনি এতে সায় দেননি। তিনি দেশের প্রচলিত আইন ও শরিয়তকেও বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন। আমরা তাঁর বিরুদ্ধে সামাজিক ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। সরেজমিনেও দেখা যায় হাবিবুর রহমান হবির এই ঘৃণ‍্য ঘটনায় উক্ত এলাকাবাসী পরিবারটিকে ঘৃণার চোখে দেখছে। তারাও এই নারী লোভী ব‍্যক্তির বিচার চান। এবিষয়ে মুঠোফোনে হাবিবুর রহমান হবির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি ১৪ টি বিয়ে করেছি, যে বউ নিয়ে সমস্যা তাকে ২০১২ সালে বিয়ে করেছি। সে আমার বিবাহিত স্ত্রী।

...
Md. Anwar Hossain Jewel(SJB:E037)
Mobile : 01717548594

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ