+

প্রাইভেট পড়ানো নিয়ে তুচ্ছ ঘটনায় আহত-৩

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৯ দিন ১৮ ঘন্টা ১৯ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 485
...


শাহ আলম, জেলা প্রতিনিধি রাঙ্গামাটি

রাঙামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার ১নং সদর ইউনিয়ন ৭ নং মধ্যপাড়া এলাকায় ২৮শে জুন, আনুমানিক সন্ধ্যা  ৬ঃ৩০ অথবা ৭ঃ০০ ঘটিকার মধ্যে দু'পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩। এর মধ্যে গুরুতর আহত হন দীনময়  তংচঙ্গা(৫০) পিতা সূর্যসেন তনচংগা, যার মাথার সামনে ৩টি ও মাথার পিছনে ১টি সেলাই দেওয়া হয়। এছাড়া তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে  ক্ষত চিহ্ন দেখতে পাওয়া যায়। অন্য আহতরা হলেন শিক্ষকের বাবা মদন কুমার তনচংগা(৪৮) পিতা মৃত পদ্ম সেন তঞ্চঙ্গ্য।যার  কানের পিছনে একটি সেলাই দেয়া হয়। আরো আহত হন মদন কুমারের ভাই সৌমিত্য তংচঙ্গা। যিনি প্রাথমিক চিকিৎসায় সুস্থ হয়। এ বিষয়ে মদন কুমার তনচংগার এর ছেলে শিক্ষক শান্তি বিজয় তংচঙ্গার কাছে ঘটনার বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি বলেন দীনময়ের ছেলে সফল কান্তি  ও মেয়ে উৎপলা তার কাছে প্রাইভেট পড়তেন। কিন্তু ছাত্রের অভিভাবক প্রায়ই পড়ানো নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করতেন। পূর্বের ন্যায় আজও সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় দিকে ছাত্রের বাবা শিক্ষকের নিজ বাসায় শাফল/ খনতা হাতে শিক্ষককে শাসাতে এলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এবং এক পর্যায়ে দীনময় উত্তেজিত হয়ে শিক্ষকের বাবা ও তার চাচাকে খনতা/ শাফল দিয়ে আঘাত করেন।এবং পরবর্তীতে নিজে কাঠের খুঁটির  সাথে নিজের মাথায় আঘাত করেন। গ্রামবাসী খবর পেয়ে তাদের তিন জনকে বিলাইছড়ি সদর হাসপাতালে আনুমানিক রাত ৮ঃ৫০ মিনিটে নিয়ে আসেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায় দীনময় কে  এলাকাবাসী গণধোলাই করেন। যার আঘাত তার শরীরের বিভিন্ন অংশে দৃশ্যমান।আরো জানা যায় যে হয়ত বা তাদের মধ্যে পূর্ব শত্রুতা থাকতে পারে। প্রশ্ন থাকে যে একজন শিক্ষকের বাসায় সন্ধ্যায় কোন শত্রুতা না থাকলে কেন দীনময় খুনতা হাতে শিক্ষকের বাসায় যান।এই প্রতিবেদন টি শুধু মাএ শিক্ষক ও হাসপাতালে আগত এলাকা বাসীর কাছ থেকে জানা যায়। আহত দীনময়ের কথা বলার অবস্থায় না থাকায় ও পরিবারের কাউকে না পাওয়ায় তাদের মতামত গ্রহণ করা যায়নি। আহতদের বিষয়ে বিলাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএসও রশনি চাকমা  প্রতিবেদককে বলেন,দীনময়ের অবস্থা আশংকা জনক।তাকে দ্রুত রাঙ্গামাটি সদর হাসপাতালে নেওয়া অতীব জরুরী।কিন্তুু তার কোন অভিভাবক না থাকায় সকল আহতদের কে বন সাইন করে অএ হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়। রোগীদের কিছু হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।ঘটনা শোনার পর তাৎক্ষণিক ভাবে  অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি দেওয়ান   ও মহিলা মেম্বার জামপরি তংচঙ্গা ও স্থানীয় মেম্বার অমৃত  কান্তি তংচংগ্যা ঘটনাস্থলে এসে রোগীর খোঁজ খবর নেন।শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেননি।

...
MD. Mizanur Rahaman Nadeem(SJB:E063)
Mobile : 01766272032

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejominbarta@gmail.com , thana.sorejominbarta@gmail.com

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

সর্বশেষ সংবাদ