+

জামালপুরে বন্যার পানি হুহু করে বেড়েই চলছে

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৮ দিন ২২ ঘন্টা ৫৯ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 940
...

ফারুক মিয়া জামালপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
উজান থেকে নেমে অাসা ভারতীয় পাহারী ঢলে জামালপুরের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যার পানি হুহু করে বাড়ছে। এতে জামালপুর জেলার ইসলামপুর ও দেওয়াগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চল সমূহের বন্যা পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হচ্ছে। ইসলামপুরের সাপধরী ইউনিয়নের কাশারীডোবা, আমতলি, চরশিশুয়া এবং চিনাডুলী ইউনিয়নের চরনন্দনের পাড়া এলাকার বন্যা পরিস্থিতি ইতিমধ্যেই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের গেজ পাঠক আব্দুল মান্নান জানান, বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে  রবিবার সন্ধা ৬ টায় যমুনা নদীর পানি বিপদ সীমার ৬৭ সেন্টি মিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে এবং বন্যার পানি দ্রুত বাড়ছে। স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, গত তিনদিন ধরে বন্যার পানি হুহু করে বাড়ছে। বন্যায় যমুনা তীরবর্তী ও চরাঞ্চলের বহু নিম্নাঞ্চল  ইতিমধ্যেই প্লাবিত হয়েছে।  বন্যায় প্রতি মূহুর্তেই নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। বিশেষ করে রবিবার দুপুরের মধ্যেই জামালপুর জেলার ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলাধীন যমুনার চরাঞ্চল সমূহের অসংখ্য নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে দেওয়ানগঞ্জ ও ইসলামপুরের বন্যা পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হচ্ছে। ইসলামপুরের সাপধরী ইউনিয়নের কাশারীডোবা, আমতলি, চরশিশুয়া এবং চিনাডুলী ইউনিয়নের চরনন্দনের পাড়া এলাকার বন্যা পরিস্থিতি ইতিমধ্যেই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ইসলামপুরের সাপধরী ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জানান, যমুনার পেটে জেগে উঠা সাপধরী ইউনিয়নের নতুন চরাঞ্চল সমূহে আষাঢ় মাসেই অতিরিক্ত বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। এতে  সাপধরীর প্রজাপতি, চরশিশুয়া, চরনন্দনের পাড়া, আমতলি,  কাশারীডোবা, কটাপুর, ইন্দুল্যামারী, আকন্দ পাড়া, কোদাল ধোয়া, মন্ডল পাড়া,  বিশরশি ও চেঙ্গানিয়া চরাঞ্চল সমুহের অসংখ্য নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে বহু কৃষকের পাট ও আউশ ধান ক্ষেত পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এসব চরাঞ্চলের অন্ততঃ ৫ হাজার বাড়ীঘরে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। ইতিমধ্যেই বন্যা কবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানি ও গো-খাদ্যের সংকট শুরু দিয়েছে। ইসলামপুরের সাপধরী ইউনিয়নের কাশারীডোবা গ্রামের ষাটোর্ধ মারফতি রানী বলেন, রবিবার সকালে ঘুমত থইনে উঠে দেহি ঘরের মইদ্যে এক হাটু পানি। পানির মইদে পাও নামাইয়ে দেহি তীব্র স্রোতও বইতাছে। কোনভাবেই ঘরে থাহন যাইতাছে না। আবার হুহু করে বানের পানিও বাড়তাছে। তাই জীবন বাঁচানোর জইন্যে বাড়ির কাছেই একটি খালের ধারে উঁচু জাগাত আশ্রয় নিছি। ঘরত তেমন কোন খাবারও নাই। আঙ্গরে আপনেরা বাঁচান। ইসলামপুরের কাশারীডোবা গ্রামের কৃষক আজিজুর রহমান চৌধুরী জানান, এবছরের আগাম বন্যায় আমার বাইশ বিঘা জমির পাটক্ষেত, একবিঘা জমির ধানক্ষেত, একবিঘা জমিরবেগুন ক্ষেত, দুই বিঘা জমির আউশ ধান ক্ষেত ও আরো একবিঘা জমির সবজি ক্ষেতে ইতিমধ্যেই কোমর পর্যন্ত বন্যার পানি উঠেছে। এদিকে বন্যার পানি হুহু করে বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এতে এবছর বন্যায় আমার অন্ততঃ পাঁচ লাখ টাকা মুল্যের ফসলের ক্ষতি হবার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এদিকে একই সাথে আমাদের গ্রামের আরো প্রায় দুই হাজার কৃষকের পাট, আউশ ধান ও সবজি ক্ষেতের অপূরণীয় ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা বিরাজ করছে। স্থানীয় সুত্রে আরো জানাগেছে, এবছরের আগাম বন্যায় যমুনার বুকে জেগে উঠা দেওযানগঞ্জের চিকাজানী ইউনিয়নের  খোলাবাড়ী যাতায়াত রাস্তা ব্রহ্মপুত্র নদীর প্রবল বন্যার চাপে ভেঙ্গে রাস্তাটির যাতায়াত বন্ধ হয়েছে এবং ইসলামপুরের শ্বশারিয়াবাড়ী, জিগাতলা, বরুল, মন্নিয়া ও বেলগাছা চরাঞ্চল সমূহের বহু কৃষকের পাট ও ধানক্ষেত তলিয়ে গেছে।

...
MD. Faruk Mia(SJB:E030)
Mobile : 01713537884

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejominbarta@gmail.com , thana.sorejominbarta@gmail.com

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

সর্বশেষ সংবাদ