গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত অনলাইন নিবন্ধন নাম্বার ৬৮

বিকেল হলে হাজার চড়াই আশ্রয় নেয় ইবরাহীম খাঁ কলেজ গেট অপরাজিতা ফুল গাছের ডালে

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ২৫ দিন ১৩ ঘন্টা ১ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 415
...

মোঃ আব্দুর রহীম মিঞা ( টাঙ্গাইল) ভূঞাপুর প্রতিনিধি ঃ ‘বাবুই পাখিকে ডেকে বলছে চড়াই, কুড়ে ঘরে থেকে করেছো শিল্পের বড়াই’ আজকাল কুড়ের ঘরও নেই, নেই কুড়ের ঘরে বাসা বেঁধে বাস করা চড়াই। যে কোনো লোকালয়ের আসে-পাশে,বাড়ীর উঠানে লেজ নাড়িয়ে নেচে নেচে খাবার খেতে দেখা যায় প্রায় প্রতিদিন। এরা জনবসতির মাঝে থাকতে ভালো বাসে । এদের চলাফেরায় মনে হয় এদের সাথে বাড়ীর লোকজনের বহুদিনের বন্ধত্বের সম্পর্ক। চড়াই পাখি মানুষের বাসস্থানের ঘরের কোনে বাসা বেধে থাকতে ভালোবাসে ঝুটি বেঁধে । মানুষের সাহচার্য চড়াই পাখির আপন ঠিকানা । ঘরের কোনে খড়-কুটো দিয়ে বাসা বেঁধে জীবন-চারণ চলে বছরের পর বছর চড়াই পাখিদের। আজকাল মানুষের জীবনমান উন্নত হওয়ায় ছুৃনের ঘরের পরিবর্তে অট্রলিকা তৈরির প্রতিযোগতিায় ব্যস্ত। অন্যদিকে গ্রাম থেকে শহরে বাঁশ-ছুনের ঘর বিলুপ্তি হওয়ায় চড়–ই পাখির কিঁচির-মিচির শব্দে মুখরিত হয় না ঘরের বারান্দা,উঠান-আঙ্গিনা । ছুনের ঘর বিলুপ্তির হওয়ায় আশ্রয়ে নিরাপদ জায়গা খোঁজে বেড়াতে হয় পাখিদের। যার কারণে এ পাখির সংখ্যা কমে যাচ্ছে গ্রাম-শহর অ’লে। তবু প্রচুর পরিমানে চড়াই পাখি আমাদের আশ-পাশে বাড়ী-রাস্তা-ঘাট,ফসলের মাঠে বিচরণ করতে দেখা যায়। সারাদিন যেখানে বিচরণ করুক না কেনো সন্ধ্যা হলে তাদের একটি নিরাপদ আশ্রয়ের যায়গা বেছে নিতে হয়। উদ্বাস্ত শান্তু-শিষ্ট চড়াইগুলো তাই এমন একটি জায়গা বেছে নিয়েছে সেখানে শত-শত মানুষের বিচরণ থাকলেও তাদেরকে বিরক্ত করছেনা কেউ। বিকেল হলেই চড়–ই পাখিগুলো আশ্রয় নিচ্ছে ভুঞাপুরে ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজ গেটে উপর অপরাজিতা ফুল গাছের ডালে । এ গেটের পাশ দিয়ে শত শত মানুষের চলা-চল থাকলেও কোন ভয়ই তাদেরকে দমাতে পারেনি। সন্ধ্যার আগেই দলবেধে উড়ে এসে বসতে থাকে গাছের ডালের সবুজ পাতার আড়ালে। কয়েক হাজার ছাত্র-ছাত্রী ,শিক্ষক, কর্মচারী ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজের আসা-যাওয়ার একমাত্র গেট এটি। বিকেল হলে শিশু-কিশোর ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজ ও ভূঞাপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে খেলা-ধূলা করছে। এতসব কোলাহলের মাঝেও ইবরাহীম খাঁ কলেজ গেট অপরাজিতা ফুল গাছের ডালে কিচিরমিচির শব্দে মূখর হচ্ছে গোটা এলাকা। সারা দিন তাদের কোন দেখা মিলেনা এখানে, কিন্তু বিকেল হলেই শত শত চড়–ই পাখি দলবদ্ধ হয়ে কোথা থেকে আসে এ প্রশ্ন স্থানীয় উৎসুখ দর্শকদের। চড়–ইগুলো যখন ডালে বসছে-উড়ছে এমন সময় এক অপূর্ব পরিবেশের সৃষ্টির হয়। ইবরাহীম খাঁ কলেজ সন্ধ্যা হলে চারদিকের বৈদ্যতিক আলোয় গেটের অপরাজিতা ফুল গাছের ফুল ও সবুজ পাতাগুলো রুপালি আলোয় ঝলমল করে তোলে। এসময় চড়–ই পাখির ডানাগুলোর সাদা-ধূসর রং রুপালি আলোয় মিশে একাকার হয়ে উঠে। আবার চাঁদের আলোতে চড়–ই গুলো ইব্রাহীম খাঁ কলেজ গেটের অপরাজিতা গাছের ডালে অপরুপ সৌন্দর্য মুগন্ধ করে ক্ষনিকের জন্য পথচারিকে পথ চলা থামিয়ে দেয়। চলার পথে থমকে দাড়িয়ে কিছুক্ষণ মনোমুগদ্ধ নয়নে তাকিয়ে থাকে অপরাজিতার ডালে চড়াই পাখিদের কোলাহলের দিকে। কলেজ গেটে পাশেই রয়েছে ভ্যান, অটো স্ট্যান্ড। পাশেই রয়েছে কয়েটি চায়ের দোকান । দোকানে বসে চা পান কারিরা অপরাজিতার ফুল-চড়–ইর মিতালীর অপরুপ দৃশ্যে চায়ে চুমুক দেয়াই ভুলে যায় এ সময়। চায়ের দোকান ব্যবসায়ী মোঃ পিয়ার আলী জানান, আমার দোকান থেকে কয়েক গজ দুরেই ইবরাহীম খা কলেজ গেট । আমি সকাল থেকেই রাত ১০-১১ টা পর্যন্ত এখানে দোকান করি । প্রতিদিন লক্ষ্য করি মাগরিবের আজানের আগ থেকে চড়–ই পাখিগুলো আসতে শুরু করে। এতো পাখি কোথায় থেকে আসে কল্পনাই করা যায় না। পাখিগুলো সন্ধ্যার পর-পরই নিস্তব্ধ হয়ে যায়। কিচি-মিচির শব্ধ আর থাকে না। এই অল্প যায়গায় শতশত পাখি একত্রে বসবাস করছে তা বুজার কোনো উপারই নেই । ঝড় বৃষ্টির মধ্যেই সেখানেই অবস্থান করে রাত কাটায় তারা । আবার দিনের আলো ফুটার আগেই সেখান থেকে কোথায় চলে যায় তা বুজার সাধ্য কারো নেই। খাবারের সন্ধানে সূর্য্যরে আলো ফুটার আগেই চলে যায় সেখান থেকে আবার বিকেলে সন্ধ্যার আগেই আশ্রয়ের জন্য ফিরে আসে ইবরাহীম খাঁ কলেজ গেটের অপরাজিতা ফুল গাছের ডালে। ইবরাহীম খাঁ কলেজের নৈশ পহরী চাঁন মিয়া জানান এত বড় বড় গাছ-পালা থাকতে এই গেটের উপরে ফুল গাছটির মাঝে পাখিগুলো আশ্রয় নেয় এতো এক আচর্য্যরে বিষয় । গেটের সামনে দিয়ে রাস্তা । এই রাস্তা দিয়ে ভ্যান-রিক্সা, অটো,মটরসাইকেলসহ হাজার মানুষে চলা-চল । এরই মাঝে এ জায়গাটি চড়ুই পাখি আশ্রয়ে জন্য বেছে নেয়া এটা আচার্যের বিষয়।

...
Md. Abdur Rahim Mia
01721290474

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ