+

নীজ স্ত্রীকে অন্যের হাতে তুলে দিয়ে পাহারায় স্বামী

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১৪ দিন ১৮ ঘন্টা ১৯ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 883
...

 


নিজস্ব প্রতিবেদক:
লোভ এমন একটা জিনিস যেটার কাছে অসহায় হয়ে পরেছে সমাজের কিছু উচ্চবিত্ত,  মধ্যবিত্ত ও নিন্মবিত্তের কিছু লোভী ও চরিত্রহীন মানুষ। সেই লোভে পরে নিজের বোন, স্ত্রীকে অন্যের হাতে তুলে দেয়া তাদের পক্ষে কোন ব্যাপার না। তেমনি এক ঘটনার জন্ম দিয়েছে ঝালকাঠী জেলার নলছিটি উপজেলায়। উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে ৭,৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত আসনে  প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে প্রচার করে আসছে উক্ত ওয়ার্ডের সাবেক মহিলা মেম্বার মিসেস নাজমা। সেই নির্বাচনে পাস করে দেবার আশায় নাজমার স্বামী  শানু মল্লিক নীজ স্ত্রীকে কৌশলে তুলে দেন মফিজুর রহমান শাহিন ওরফে লুচ্চা শাহিনের হাতে। ঘটনাটি ঘটেছে গেল বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে " হোটেল সি ভিউ ইন্টারন্যাশনাল কুয়াকাটা" হোটেলে। ঐ দিন লুচ্চা শাহিন

তার এলাকার রাজনৈতিক ছোট ভাইদের অনুরোধে শানু মল্লিক, শানু মল্লিকের স্ত্রী মিসেস নাজমা, ৭ নং ওয়ার্ড মেম্বার দেলোয়ার রিজভী ও দপদপিয়া ইউপি আ.লীগের প্রচার সম্পাদক দেলোয়ার মুন্সিসহ গাড়ি ভাড়া করে মোট ৬০ জনকে নিয়ে কুয়াকাটা বনভোজন (পিকনিকে) যায়। গিয়ে পূর্ব নির্ধারিত ভাড়া নেয়া হোটেল সি ভিউ ইন্টারন্যাশনালে ওঠে। তারপর  দুপুরের সমুদ্র সৈকতে গোসল করতে গিয়ে শাহিন নাজমা একসাথে কুরুচিপুর্ণ  ছবি তুলে যেটা ফেসবুকে ভাইরাল হয় মুহুর্তের মধ্যে। গোসল করে খাবার খেয়ে বিকেলে যে যার মত করে ঘোরাফেরা আনন্দ উপভোগ করার পর সন্ধায় হোস্টেলে ফিরলে রাতের খাওয়া দাওয়া শেষ করে ঘুমাতে যায়।

 

স্ত্রীকে শাহিনের হাতে যেভাবে তুলে দেয়ঃ
লুচ্চা শাহিন ও নাজমার রুম থাকে পাশাপাশি। শানু মল্লিক ও তার স্ত্রী নাজমাকেতো প্রকাশ্যে শাহিনের রুমে যেতে বলতে পারেনা। একটু কৌশলী হয়ে শানু মল্লিক, নাজমাকে রেখে রুম থেকে বের হয়ে শাহিনের সাথে থাকা মেম্বার  দেলোয়ার রিজভী ও প্রচার সম্পাদক দেলোয়ার মুন্সিকে নিয়ে রুমের বাহিরে ঘোরাফেরা করতে থাকে। এদিকে এক রুমে লুচ্চা শাহিন ও নাজমা একত্রিত হয়। ঐ দিকে রুমের বাহিরে ঘুরতে থাকা ৩ জন ঠিক দের ঘন্টা পর যে যার রুমে গিয়ে ঘুমায়। রাত গড়িয়ে সকাল হলে আবার আগের দিনের নেয় ঘোরাফিরা করে দুপুরে খাওয়া দাওয়া শেষ করে গাড়ি নিয়ে বিকেল ৪ টায় এলাকায় ফিরে।


লুচ্চা শাহিনের যত কু-কর্ম
লুচ্চা শাহিন এতটাই চরিত্রহীন যেটা নিয়ে লিখতে গেলে হয়তো কালি ফুরিয়ে যেতে পারে কিন্তু তার অপকর্ম লিখে শেষ করার মত নয়। গোপন সূত্র জানায়,  তিনি একজন জনপ্রতিনিধি, তার কাছে আর্থিক সহযোগীতা, চাকুরীর সুপারিশ পাবার জন্য সাধারণ জনগন যেতেই পারে। কিন্তু সেটাকে পুজি করে শাহিন  তার কাছে যাওয়া ব্যক্তির দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে পুরুষ হলে তার কাছে টাকা দাবী আর নারী হলে তার দেহ দাবী করে। চাকরি হবে নিশ্চিত বলে এমন করুচিপূর্ণ দাবী করে কয়েক নারীর মোবাইলে মেসেজ ও রাতে ফোন করে ঐ নারীর বডি সম্পর্কে জানতে চাওয়ার কল রেকর্ডও আছে সাংবাদিকের কাছে। এলাকায় তার ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা কেহ। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েক নারী এমনটা জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে জানতে শাহিনের কাছে কল দিলে তিনি তা রিসিভ করেননি। আর এ ব্যাপারে নাজমার কাছে জানতে চাইলে নাজমা বলেন,  এ ছবি দিয়ে ধুইয়ে ধুইয়ে পানি খান ওতে আমার কিছু যায় আসেনা। চোখ রাখুন লুচ্চা শাহিনের প্রতিবেদনের পরবর্তী পর্বে........

...
MD. EMRAN Hossain(SJB:E008)
Mobile : 01822219555

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , hr@sorejominbarta.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ