+

এমপির পিতার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জামায়াত নেতার রাজত্ব

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৪ দিন ৬ ঘন্টা ২৫ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 4080
...

আলাউদ্দিন : গজারিয়া ইউনিয়ন শাখা ছাত্র শিবিরের সাবেক বায়তুল মাল সম্পাদক এবং গজারিয়া কলেজ শাখা ছাত্র শিবিরের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্বাস উদ্দিন। যার শৈশব থেকে পারিবারিকভাবেই বিএনপি-জামায়াতের মতাদর্শি এবং কঠোর জামায়াতপন্থী।

স্থানীয় আওয়ামিলীগ নেতাকর্মী এবং তার বাড়ির ও আশপাশের বিভিন্ন মহলের তথ্যমতে তার পুরো পরিবার কট্টর জামায়াত-বিএনপিপন্থী। ছাত্রজীবন থেকেই সে ছাত্র শিবিরের রাজনীতির সাথে যুক্ত। গজারিয়া পোস্ট মাস্টারের ছেলে তার বন্ধু শিবির নেতা তরিকুল ইসলাম ২০০৭ সালে পটুয়াখালী পুলিশ কর্তৃক গ্রেপ্তার হলে দীর্ঘদিন আব্বাস এলাকা থেকে পালিয়ে বেড়ায়। আওয়ামীলীগ সরকারের অধীনে বিগত নির্বাচনগুলোতে আব্বাসসহ তার পরিবার জামায়াতের এজেন্ডায় বিএনপির পক্ষে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছে।

তথ্যসূত্রে জানা যায়, আব্বাস ২০০২-২০০৪ পর্যন্ত গজারি ইউনিয়ন শাখা ছাত্র শিবিরের আরাফাত-তারেক কমিটিতে বায়তুল মাল সম্পাদক এবং ২০০৪-২০০৯ পর্যন্ত ছাত্র শিবিরের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে। বর্তমানে সুকৌশলে জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত আছে তিনি।

উপজেলা জামায়াতের ঘরোয়া সকল মিটিং অংশগ্রহণ করেন নিয়মিত এবং প্রতিমাসে জামায়াতের বায়তুল মাল কোষাগার টাকা দেন নিয়মিত।

দীর্ঘদিন আওয়ামিলীগ ক্ষমতায় থাকায় সুযোগে মাননীয় এমপি আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন তার বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত হাজী নুরুল ইসলাম চৌধুরী মহাবিদ্যালয়ে অফিস সহকারী হিসেবে যোগদান করে, পরবর্তীতে সুকৌশলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের পদ ভাগিয়া নেয়। 

মাননীয় এমপি মহাদয়ের সরলতার সুযোগে স্থানীয় একটি মহলের সহযোগিতায় কলেজের অর্থ লুটপাট করে খাওয়া এবং অহেতুক ভাউচারে টাকা আত্মসাৎের বিষয়ে একাধিক শিক্ষক অভিযোগ করেন।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো- তার দাপটে নুরুল ইসলাম চৌধুরী কলেজের অধিকাংশ শিক্ষক নাজেহাল অবস্থায় আছে যারা একনিষ্ঠ আওয়ামিলীগ পরিবারের। সুকৌশলী ও তীক্ষ্ণ বুদ্ধির দ্বারায় সকলের চোখে ধুলো দিয়ে কলেজে একক আধিপত্য প্রয়োগ করে সে। শিক্ষকদের দাবী একজন জামায়াত শিবির নেতার এমন অধিপত্যে - দেখার যেনো কেউ নেই।

শিক্ষকরা আরো বলেন মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমরা বিষয়টি বললেও আব্বাস একটি মহলের সহায়তায় পার পেয়ে যান। তার অনার্সের সার্টিফিকেটটি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কেনা জাল সনদ বলেও দাবী করেন শিক্ষকরা।

আওয়ামিলীগের সুদিনে এদের বিচরণ দেখা মিললেও গোপনে লালমোহন উপজেলা জামায়াতের নেতাদের সাথে যোগাযোগ রাখছেন এবং জামায়াতের মাসিক কর্মীসভায় অংশগ্রহণ করেন আব্বাস উদ্দিন।

গজারিয়ার স্থানীয় আওয়ামিলীগ এবং সহযোগী সংগঠনের সাথে তার এবং তার পরিবারের কোন প্রকার সম্পর্ক নেই বলে স্থানীয় সূত্রে তথ্য পাওয়া যায়। জামায়াত আদর্শের এই পরিবারটি আওয়ামিলীগের ঘোরবিরোধী বলেও জানা যায়।

তার জন্ম এলাকার স্থানীয় আওয়ামিলীগ নেতাদেরকে জিজ্ঞাসা করলে তার সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ  তথ্য পাওয়া যায়।

বিষয়টি ভালোভাবে দেখার জন্য মাননীয় এমপি মহোদয় সহ স্থানীয় আওয়ামিলীগ নেতাদের দৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী। এরা দলের সুদিনে মুখোশ পরে সুবিধা নেক ভালো কথা, কিন্তু দুর্দিন থেকে শুরু করে বর্তমান পর্যন্ত আওয়ামিলীগ দলের জন্য এদের অবদান আছে কী? কতটুকু? তারা কোন পরিবারের? কি তাদের পরিচয়? তার আত্মীয়স্বজন কারা? 

এই বিষয়ে আব্বাস উদ্দিনের মুঠোফোনে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেন।

...
MD. Alauddin

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ