+

অবশেষে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলায় ফেসে গেল সন্ত্রাস রিমন

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ৮ দিন ২২ ঘন্টা ৩৯ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 330
...


কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে ৪ মার্চ রাত ৯ ঘটিকায়  পুলিশ-মামুনুল হক সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পল্টা ধাওয়ায়  ইউএনও এর বাসভবনে হামলা-ভাঙচুর,পুলিশ ও সাংবাদিকদের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ এবং সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করাকে কেন্দ্র করে   রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলায় ফেসে গেল সন্ত্রাস রিমন।
 ইউএনও এর বাসবভন ভাঙচুর ও ভূমি অফিস সহ কয়েকটি সরকারি স্থাপনায় হামলা করায় উপজেলা ইউএনও বাদি হয়ে ৫০০ জনের নামে মামলা করেন।এবং পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করায় পুলিশের উপপরিদর্শক এসআই সাদ্দাম হোসেন বাদি হয়ে উল্লেখ্য ৩৩ জন ও অজ্ঞাত ৫০০ জনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা করেন।মামলার প্রধান আসামী করা  হয় পৌর আওয়ামিগীগের  ১ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক মজলু মিয়ার ছেলে রিমনকে।
জানা যায়, এছাড়াও রিমন এলাকাতে বড় ধরনের একটা সিন্ডিকেট তৈরি করে মাস্তানি করে বেড়ায়।তার ভয়ে এলাকার নিরীহ লোকগুলো সব সময়ই একটা আতঙ্কে থাকে।এলাকাবাসী রিমন, রিমনের  বাবা মজলু মিয়া ও চাচা বাদশা মিয়ার ভয়ে মুখ খুলতে পারে না বলে জানায়। এছাড়াও রিমন একটা ডাকাতি মামলা ও একটা নারী নির্যাতনের মামলা সহ  বেশ কয়েকটা মামলার আসামী বলে জানায় স্থানীয়রা।২২ মার্চ রাত  ১ ঘটিকার সময় উপজেলার নারী সাংবাদিক ফারজানার আক্তারের ফেসবুক আইডি থেকে একটা স্টেটাস দেয় "মজলু, মজলুর ছেলেরা এবং মজলুর ভাই বাদশা মিলে নেশা করে আমার ঘরে হামলা দিয়েছে আমাকে সবাই বাচাঁন"।এ বিষয়ে সাংবাদিক ফারজানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ করে বলেন,পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২২মার্চ রাত প্রায় ১ টার দিকে মজলু মিয়া(৫০), মজলু মিয়ার ছেলে রিমন(২২)ও তার ভাই বাদশা মিয়া তাদের দলবল নিয়ে শতাধিক লোক আমার ঘরে হামলা দেয়। আমি ও আমার ছয় বছরের বাচ্চা মেয়ে প্রান বাচাঁতে খাটের নিচে লুকিয়ে থেকে ফেসবুকে এই স্টেটাস দেই।স্টেটাস দেখে সাথে লোকজনএবং থানায় ফোন দিলে পুলিশ এসে আমাকে উদ্দার করে। এ ব্যপারে অভিযোগ করার জন্য আমি কুলিয়ারচর থানায় তিন দিন গিয়েছি কিন্তু অভিযোগ করার সাহস পাইনি।বার বারই আমার মা ফোন দিয়ে আমাকে বলত তুই এ ব্যপারে কোন অভিযোগ করলে এ রাতেই তোকে টুকরো টুকরো করে ফেলবে  মজলু ও তার ছেলে রিমন।মিডিয়া ও প্রশাসন পরে বিচার করবে কিন্তু ঘটনা তো ঠেকাতে পারবে না। পৌর মেয়র বলছেন এর সঠিক বিচার করবেন।
স্থানীয়রা জানায়, রিমন ও তার বাবা মজলু মিয়া  দলবল নিয়ে বড়খারচর গ্রামের সরকার বাড়ির বেশ কয়কেকটা বাড়িতে ভাঙচুর লোটপাট করে, প্রায় ১ বছর আগে রিমন তার ফুফুর বাড়িতে গিয়ে ফুফু ও পাশের বাড়ির জমির জের ধরে দলবল নিয়ে  অহিদ মিয়া নামে এক অসহায় লোকের ঘরবাড়ি ভাঙচুর ও লোটপাট করে এবং ফসলের গাছপালা ধ্বংস করে দেয়।রিমনের বাবা মজলু মিয়া প্রায়ই রাতের বেলা নেশা করে এলাকার লোকজনকে গালিগালাজ করে এবং হুমকি দেয় বলে জানায়।

...
Md. Kudrat Ali(SJB:E515)
Mobile : 01718988252

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন
01868974512

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ