+

ফেনীতে সবজির দাম চড়া:বিপাকে ক্রেতারা

সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ১২ দিন ১২ ঘন্টা ৪ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 765
...

ফেনীতে আড়তদাররা সিন্ডিকেট করে একই সবজি ৩ দামে বিক্রি করছেন খুচরা বাজারে। চড়া দামে বিক্রি করায় বিপাকে পড়ছেন ক্রেতারা।সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ থাকলেও আড়তদার সিন্ডিকেটের কারনে চড়া দরে বিক্রি হচ্ছে সবরকমের সবজি। ফেনী শহরের বড় বাজার, সুলতান মাহমুদ পৌর হকার্স মার্কেট, মহিপাল ও মুক্ত বাজারে খুচরা ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করে চড়া দামে সবজি বিক্রির কারন তুলে ধরেন। তারা জানান, বিগত এক থেকে দেড় মাস চড়া দামে সবজি বিক্রি হচ্ছে। এর আগে বর্তমানের চেয়ে প্রতি সবজিতে অর্ধেক দাম ছিল। চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কিছু কম হলেও আড়তদাররা সঠিক তদারকী করলে এমন চড়া দামে বিক্রি হতো না। বেশীরভাগ খুচরা ব্যবসায়ীর অভিযোগ, আড়তদারদের যোগসাজসে কাঁচাবাজারে ক্রেতাদের নাভিশ্বাস উঠেছে।বুধবার বাজার ঘুরে গেছে, টমেটো ১০০-৯০ টাকা, বেগুন ৬০-৫৫ টাকা, ঝিঙ্গা ৪৫-৫০ টাকা, মুলা ৪৫-৫০ টাকা, করলা ৬০-৫৫ টাকা, বরবটি ৭৫-৭০ টাকা, ফুলকপি ৮৫-৯০টাকা, বাধাকপি ৫৫-৬০টাকা, ঢেঁঢ়শ ৫০-৪৫ টাকা, শসিন্দা ৬০-৫৫, শসা (বড়) ৬০-৫৫টাকা, শসা (ছোট) ৩০-৩৫ টাকা, পটল ৬০-৫৫ টাকা, গাজর ৬০-৫৫ টাকা, কাঁচামরিচ ২০০টাকা, মিষ্টি কুমড়া কেজি ৫০-৪৫ টাকা, প্রতি আঁটি পুঁইশাক ২৫ টাকা, কুমড়ার শাক ২৫ টাকা, লাল শাক ১৫টাকা, চড়া কেজি ৫০-৪৫টাকা, পেঁপে কেজি ৩৫-৩০টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও আলু প্রথমে ৩০ টাকা ও পরে ৩৫টাকা সরকার নির্ধারণ করলেও তা না মেনে আলু বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকার বেশি। লেবু প্রতি পিস বিক্রি হচ্ছে ৬-৫টাকা।মুক্ত বাজারের খুচরা ব্যবসায়ী মো: ইলিয়াস জানান, আড়তদাররা সিন্ডিকেট করে একই কাঁচামাল তিন ধরণের দামে বিক্রি করেন। ভোরবেলায় চড়া দাম থাকলেও সকাল ১০টার দিকে কেজিতে ৫-৭টাকা কমে যায়। দুপুরে আরো ১০-১২টাকা কমিয়ে বিক্রি করা হয়। সেই কারনে যেসব খুচরা ব্যবসায়ী ভোর বেলা আড়তদার থেকে চড়া দামে কিনে তা আরো বেশী দামে বিক্রি করা ছাড়া কোন উপায় থাকে না।খুচরা ব্যবসায়ী জানান, আড়তদাররা তিনরকম দামে কাঁচামাল বিক্রি করায় খুচরা দাম ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। একই বাজারে পাইকারি দাম একই মালের ৭৫ টাকা আবার কোন কোন ব্যবসায়ী ৭০টাকা দিয়ে ক্রয় করেন। পাশাপাশি দোকান হওয়ায় ক্রয়ের চাইতে বিক্রিতে লোকসান গুনতে হচ্ছে। আড়তদারদের কারনে খুচরা ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত। ইতিমধ্যে কিছু খুচরা ব্যবসায়ী কাঁচামাল ব্যবসা ছেড়ে অন্য কাজ করছেন বলে তারা জানান।বড় বাজারের এক খুচরা ব্যবসায়ী জানান, একসময় আড়তদাররা কমিশনে কাঁচামাল বিক্রি করতো। তখন খুচরা ব্যবসায়ীরা লোকসান গুনতে হয়নি। এখন প্রতিদিন খুচরা ব্যবসায়ীরা লোকসান গুনতে হচ্ছে। এটির একমাত্র কারন হিসেবে তারা বলেন, আড়তদাররা এখন অতিমাত্রায় ব্যবসা করতে গিয়ে বিপাকে পড়তে হচ্ছে খুচরা ব্যবসায়ী ও ক্রেতারা। তারা রাতারাতি বড় লোক হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন বলে খুচরা ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের নাভিশ্বাস দেখা দিয়েছে।পৌর হকার্স মার্কেটে ব্যবসায়ী  জানান, খুচরা ব্যবসা এখন বোঝায় পরিণত হয়েছে। কাঁচামালের প্রতিটি ক্যারেটে দুই এক কেজি মাল পঁচা পড়ে। মালের ধরন অনুযায়ী ক্যারেটে ৪-৫ কেজিও পঁচা পড়ে। এতে লাভ তো দূরের কথা লোকসান গুনতে মাথায় হাত।বড় বাজারের খুচরা ব্যবসায়ী কাঁচামাল চাহিদার তুলনায় সরবরাহ রয়েছে উল্লেখ করে বলেন, তিনি ভোর বেলায় আড়তদার থেকে কাঁচামাল ক্রয় করে দোকান শুরু করেন। পরে শুনেন যারা সকালে ১০টার দিকে আড়তদারা থেকে কিছুটা কম দামে মালামাল ক্রয় করেন। আবার দুপুরে কিনলে আরেকটু কম দামে পাওয়া যায়।মহিপালের খুচরা ব্যবসায়ী জানান, আড়তদার থেকে যে দামে কাঁচামাল কিনেন সে মালের সাথে সমন্বয় করে বিক্রি করা কস্টসাধ্য হয়ে পড়ে। কারন কাঁচামালের ধরন অনুযায়ী পঁচা পড়ে ক্যারেটে ৩-৫ কেজি তাই বেশী দামে বিক্রি করতে হয়।নাম প্রকাশে অনিশ্চুক একাধিক খুচরা ব্যবসায়ী জানান, কাঁচা বাজার নিয়ন্ত্রণে আনতে আড়তদারদের আন্তরিকতা ছাড়া সম্ভব নয়। আড়তদারা আন্তরিক হলে কাঁচাবাজার নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে আশা করা যায়।ফেনী কাঁচামাল আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের খুচরা ব্যবসায়ীদের অভিযোগ অস্বীকার করে কে জানান, যে সবজি পাইকারি ৫০ টাকা দরে কিনে তা কেন ৭০ টাকা দরে বিক্রি করা হয়। তারা প্রতি কেজিতে ২০ টাকা লাভ না করে ৫-১০ টাকা লাভ করতে পারেন।তিনি আরো বলেন, আগে ৫০ ট্রাক মাল আসলেও এখন ৩০ ট্রাক আসে। তাই বেশী দামে সবজি বিক্রি করতে হয়। তিন দামে সবজি বিক্রির বিষয়ে তিনি জানান, সবজি কাঁচামাল হওয়ায় রাখা যায় না। তাই সময়সাপেক্ষে কম-বেশী দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। আগামী ১৫দিনের মধ্যে সবজিরক দাম অর্ধেকে নেমে আসবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

...
Md. Saiful Islam(SJB:E525)
Mobile : 01558813552

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোহাম্মদ বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া
01731 80 80 79
01798 62 56 66

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক
আল মামুন
01868974512

প্রধান কার্যালয় : লেভেল# ৮বি, ফরচুন শপিং মল, মৌচাক, মালিবাগ, ঢাকা - ১২১৯ | ই-মেইল: news.sorejomin@gmail.com , thana.sorejomin@gmail.com

...

©copyright 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা

Family LAB Hospital
সর্বশেষ সংবাদ