বিয়ের বছর না যেতেই ভেঙে যাচ্ছে অভিনেত্রীর সংসার

news-details
বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক    : ক্যারিয়ারের খুবই বাজে সময়ে ভালোবেসে দীর্ঘদিনের বন্ধুকে বিয়ে করেছিলেন। ভেবেছিলেন দুঃসময় কাটাতে ভালো সঙ্গী হবেন তার স্বামী। সুখে থাকবেন দুজন। কিন্তু সেই স্বপ্ন দুঃস্বপ্ন হয়ে নেমে এলো। বিয়ের বছর না ঘুরতেই এলো ভাঙনের খবর। তিনি দক্ষিণ ভারতের বাঙালি অভিনেত্রী শ্বেতা বসু প্রসাদ। বিয়ের পর বছর ঘোরেনি, স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রোহিত মিত্তলের সঙ্গে বিচ্ছেদেরে ঘোষণা নিজেই দিয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তিনি জানান, রোহিত এবং তিনি একসঙ্গে বসে আলোচনা করেই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিয়ের পর রোহিতের সঙ্গে যে স্মৃতি রয়েছে তা অক্ষুণ্ণ থাকবে। গত বছর ১৩ ডিসেম্বর রোহিত মিত্তলের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন শ্বেতা বসু প্রসাদ। বেশ ধুমধাম করেই রোহিতের সঙ্গে সাতপাঁকে বাঁধা পড়েন তিনি। লাল রঙের বেনারসি পরে একেবারে বাঙালি সাজেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন শ্বেতা। তার বিয়েতে দক্ষিণী সিনেমা জগতের অনেক তারকা হাজির হন।

বিয়ের পর শ্বেতা এবং রোহিতের রিসেপশনের আসরও বসে বেশ জমকালোভাবেই। তবে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই রোহিতের সঙ্গে মতের অমিল শুরু হয় শ্বেতার। এরপরই তারা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন। তবে কী কারণে দীর্ঘদিনের বন্ধু তথা স্বামী রোহিত মিত্তলের কাছ থেকে বিচ্ছেদ চাইছেন শ্বেতা বসু প্রসাদ, সে বিষয়ে স্পষ্টভাবে কিছু জানা যায়নি।

প্রসঙ্গত, শ্বেতা বলিউডে পা রাখেন শিশুশিল্পী হিসেবে ৷ ২০০২ সালে শাবানা আজমির সঙ্গে ‘মকড়ি’ ছবিতে দুর্দান্ত অভিনয়ের পরে সেরা শিশু শিল্পী হিসেবে জাতীয় পুরস্কারও জিতে নিয়েছিলেন। তারপর বেশ কয়েকটি ছবিতেও দেখা গিয়েছিল শ্বেতাকে। যার মধ্যে ‘ইকবাল’-এ অভিনয় করে নজর কেড়েছিলেন শ্বেতা ৷ এরপর সিনেমা ছেড়ে টিভিতে খুবই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন তিনি।

অভিনয় ক্যারিয়ার ভালোই চলছিল শ্বেতার ৷ কিন্তু হঠাৎই তিনি জড়িয়ে পড়েন বিতর্কে। ২০১৪ সালে দেহব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন অভিনেত্রী। দুই মাস পুনর্বাসন কেন্দ্রে থাকার পরে ফের সমাজের মূল স্রোতে ফিরে আসেন ৷ করেন বিয়েও। কিন্তু সেই বিয়ে সুখী করতে পারলো না শ্বেতাকে। আপাতত তিনি অভিনয়েই পূর্ণ মনোযোগ দিতে চান বলে জানান।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা