মহানগর আ.লীগের নতুন নেতৃত্বে বজলুর-মান্নান, মান্নাফি-হুমায়ূন

news-details
রাজনীতি

ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।  ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি।

অন্যদিকে, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হয়েছেন আবু আহাম্মদ মান্নাফি, সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন হ‌ুমায়ূন কবির।

শনিবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন কাউন্সিলের দ্বিতীয়  অধিবেশনে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এই কমিটি ঘোষণা করেন। এর আগে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রথম অধিবেশনে বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কমিটি ঘোষণার সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, “ঢাকা মহানগর উত্তরে সভাপতি পদে আট জন, সাধারণ সম্পাদক পদে নয় জনের নাম প্রস্তাব হয়, আর দক্ষিণে সভাপতি পদে ১০ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ১৩ জনের নাম প্রস্তাব হয়। আমরা সমঝোতার জন্য তাদেরকে ১০ মিনিট সময় দিয়েছি।

কিন্তু সমঝোতা না হওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর নির্দেশে ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি ও দক্ষিণে সভাপ‌তি আবু আহাম্মদ মান্নাফি, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরকে নির্বাচিত করা হয়েছে। আমরা আশা করি আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর এই সিদ্ধান্ত আপনারা মেনে নেবেন।

ঢাকা মহানগর নব নির্বাচিত সভাপতি শেখ বজলুর রহমান এর আগে উত্তরের সদ্য বিদায়ী কমিটির সহ সভাপতি ছিলেন। তার আগেও তিনি সহ সভাপতি ছিলেন।  এ ছাড়াও তিনি  ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ থেকে শুরু করে মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন ও সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

ঢাকা মহানগর নব নির্বাচিত এস এ মান্নান কচি সদ্য বিদায়ী কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়াও তিনি  অবিভক্ত ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক ছিলেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদ্য বিদায়ী কমিটির সহ সভাপতি ছিলেন আবু আহমেদ মান্নাফি ও হুমায়ুন কবির দুজনই। এই সম্মেলন থেকেই আগামী তিন বছরের জন্য নগর আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পেলেন নবনির্বাচিতরা।

আগামী বছর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শত বার্ষিকী ও ‘মুজিব বর্ষ উদযাপনকে সামনে রেখে দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি ইউনিট ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণকে ঢেলে সাজানোর অংশ হি‌সে‌বে স‌ম্মেল‌নের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব বে‌ছে নি‌লো আওয়ামী লীগ।

অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর। তবে, ২০১৫ সালে ঢাকা মহানগর দুই ভাগে বিভক্ত হওয়ার পর ২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল একেএম রহমতুল্লাহকে সভাপতি ও সাদেক খানকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর উত্তর এবং আবুল হাসনাতকে সভাপতি ও শাহে আলম মুরাদকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর দক্ষিণের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

 

 

 

 

 

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরজমিনবার্তা