পরীক্ষাতে শূন্য পাওয়া ছাত্রীর থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছেন গুগল প্রধান

news-details
আন্তর্জাতিক

কিছুদিন আগে এক ছাত্রী তার সোশ্যাল মিডিয়াতে জানিয়েছিলেন পরীক্ষাতে শূন্য পাওয়ার কথা। কিন্তু ভাবতে পারেননি যে তার এই পোস্টে মন্তব্য করবেন স্বয়ং গুগল প্রধান। কয়েক দিন আগে সারাফিনা ন্যান্স নামে একজন সোশ্যাল মিডিয়াতে লিখেছিলেন ৪ বছর আগে তিনি কোয়ান্টাম ফিজিক্সের পরীক্ষায় শূন্য পেয়েছিলেন। তারপরে তিনি তার অধ্যাপকদের কাছে গিয়ে ভয়ে জানিয়েছিলেন প্রধান বিষয় পরিবর্তনের কথা।

আর আজ তিনি অ্যাস্ট্রো ফিজিক্সে গবেষণা করছেন এবং তার দুটি গবেষণা পেপার ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন পরীক্ষার নম্বর কখনই কাউকে বিচার করার মাপকাঠি নয়। বৃহস্পতিবার তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে এই পোস্ট করেছিলেন। তারপর থেকে ১০ হাজার বার রিটুইট করা হয়েছিল এবং তার পোস্ট ৫৭ হাজারের বেশী লাইক করা হয়েছিল।

পিচাই উত্তরে জানিয়েছেন যথেষ্ট অনুপ্রেরণাদায়ক। এছাড়াও এই গবেষক ব্রেস্ট ক্যান্সারের সঙ্গে লড়েছেন। তিনি যে সত্যিকারের একজন যোদ্ধা তা আবারও প্রমাণ করেছেন। ক্যান্সার বিজয়ী হিসেবেও তিনি নিজেকে প্রমাণ করেছেন। উদাহরণস্বরূপ মাইক টার্নারের কথা বলা যায়। তিনি লন্ডনের ওয়েলকাম ট্রাস্টের ডিরেক্টর অফ সাইন্স পদে রয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন, এটি যথেষ্ট অনুপ্রেরণাদায়ক। আমিও দ্বিতীয় শ্রেনীতে স্কুল ছেড়েছিলাম। তারপরের বছরে তৃতীয় শ্রেণীতে যোগ দিয়েছিলাম। তারপর নিজের পড়াশোনা করেছিলাম। আর আজ আমি এই জায়গাতে রয়েছি। ব্যর্থতা কখনই কাউকে বিচার করার মাপকাঠি নয় বলেও জানিয়েছেন।

আর একজন জানিয়েছেন ‘তুমি যথেষ্ট সাহসী। তোমার জীবনের গল্প অনেককে অনুপ্রাণিত করবে। আমি আশা করব আমার ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তমাকে অনুসরন করবে।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরজমিনবার্তা