অজিতের ‘দলবিরোধী’ সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ শরদ

news-details
আন্তর্জাতিক

যার জেরে বদলে গেল সব হিসেব। প্রায় ১৫ দিন ধরে চলা রাষ্ট্রপতি শাসনের অবসান ঘটল শনিবার সকালে আচমকাই। আর তারপরেই জানা গেল দ্বিতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন দেবেন্দ্র। প্রায় একমাস ধরে এই রাজ্যতে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ছিল টানটান বলিউডি সিনেমার মত। বিজেপির সঙ্গে জোট ছেড়ে বেড়িয়ে আসা থেকে শুরু করে সম্ভাব্য মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী সব কিছু নিয়েই ছিল উত্তেজনা। কিন্তু শেষ বলে বাজি মেরে এভাবে যে দেবেন্দ্র ফড়নবীশ মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন তা হয়তো ভাবেননি কেউই।

এই উলটপুরাণের নায়ক হিসেবে যে নাম উঠে আসছে তা হল অজিত পাওয়ার। এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার জানিয়েছেন এই বিষয় নিয়ে তিনি কিছুই জানতেন না। পুরোটাই অজিতের নিজের সিদ্ধান্ত।

শুক্রবার পর্যন্ত ঠিক ছিল মারাঠাভূমিতে আগামী মুখ্যমন্ত্রী পদে বসতে চলেছেন উদ্ধব ঠাকরে। যদিও তিনি নিজে এই নিয়ে কিছু জানান নি। কেবলমাত্র সংবাদ মাধ্যমের সামনে জানিয়েছিলেন আলোচনা সঠিক ভাবে হয়েছে। তারপর এই চমক অবাক করেছে সকল রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। এনসিপির তরফ থেকে জানা গিয়েছে শীর্ষ নেতারা অজিত পাওয়ারের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানাননি। এমনকি শরদ পাওয়ার নিজেও এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানাননি তা বোঝা গিয়েছে।একদিন আগেই শরদ পাওয়ার নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করে অতিবৃষ্টির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের নিয়ে আলোচনা করেছিলেন। যদিও এর আগে এনসিপি প্রধানের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সম্পর্ক ভালই ছিল। কিন্তু রাজনৈতিক ওঠাপড়ার প্রভাব এসে পড়েছিল তাঁদের সম্পর্কের মাঝেও।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অজিত পাওয়ার এবং দেবেন্দ্র ফড়নবীশকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এছাড়া সাংবাদিকদের সামনে ফড়নবীশ এনসিপির অজিত পাওয়ারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কেননা এই রাজ্যতে সরকার গড়ার ক্ষেত্রে তিনি এগিয়ে এসে বিজেপিকে সঙ্গ দিয়েছেন। অন্যান্য বেশ কিছু নেতাও তাদের সঙ্গে এগিয়ে আসছেন বলেও জানিয়েছেন।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরজমিনবার্তা