ঢাবির বাসে হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

news-details
শিক্ষা

মোহাম্মদ মাকসুদুল হাসান ভূঁইয়া রাহুলঃ

পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘট চলাকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের পরিবহনকারী বাসে হামলা চালানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)।

আজ বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর, ২০১৯) বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মানবন্ধনে ঢাবি বাসে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তি দাবি করা হয়।

 এসময় বক্তব্য রাখেন ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক আসিফ তালুকদার, পরিবহন সম্পাদক শামস ই নোমান, সাহিত্য সম্পাদক মাজহারুল কবির শয়ন, সদস্য তিলোত্তমা শিকদার, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিবহন পরিষদের আহ্বায়ক মোবারক হোসেন প্রমুখ। ভবিষ্যতে ঢাবির বাসে হামলা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা শক্ত অবস্থান নিয়ে প্রতিরোধ করবে বলে ঘোষণা দেন বক্তারা।

ডাকসু ভিপি নুরুল হক বলেন, "পরিবহন শ্রমিকরা তাদের স্বার্থে আঘাত লাগলে আন্দোলন করতে পারে, কিন্তু আন্দোলনের নামে কেন সাধারণ মানুষের মুখে কালি মেখে দেবে? কেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে হামলা করা হবে? এটা কোনো আন্দোলন নয়, এটা ছিল একটা নৈরাজ্য এবং উস্কানিমূলক আন্দোলন। এটি কোনো আন্দোলন নয়, এটি একটি নৈরাজ্য ছিল।"

পরিবহন সম্পাদক শামস ঈ নোমান বলেন, "ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে হামলা মানে ঢাবির ঐতিহ্যের ওপর হামলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩ হাজার শিক্ষার্থীর ওপর হামলা। আমরা হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে সরকারকে আহ্বান জানাচ্ছি।"

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিবহন পরিষদের আহ্বায়ক মোবারক হোসেন বলেন, "যদি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে আবার হামলা করা হয় তাহলে আমরা শক্ত অবস্থানে যাবো।" 

মানববন্ধন শেষে ডাকসু নেতৃবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় ঢাবি শিক্ষার্থীদের পরিবহনকারী বাসে হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তাঁরা। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে থানায় মামলা করা হবে বলে আশ্বাস দেন ঢাবি ভিসি। 

উল্লেখ্য, গত বুধবার (২০ নভেম্বর, ২০১৯) নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় সকাল ৭টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বহনকারী 'ঈশা খাঁ' বাসে হামলায় চালান একদল পরিবহন শ্রমিক। এসময় বাসের চালক ও একজন বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারীকে মারধর করা হয়। এছাড়া ওয়ারিতে বাস চালকের গায়ে আলকাতরা মেখে দেওয়া হয়, টঙ্গীতে ক্ষণিকা বাস ভাংচুর করা হয় এবং বেশ কয়েকটি রুটের ঢাবি বাস আসতে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরজমিনবার্তা