রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে আবারও বাংলাদেশকে দুষলো মিয়ানমার

news-details
আন্তর্জাতিক

ইউ জ হতে সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘বাংলাদেশ সহযোগিতা না করায় এই সমস্যা বিদ্যমান থাকবে। ১৯৯৩ সাল থেকে সমস্যা দেখা দিয়েছে। ওই সময় সহযোগিতা ছিল এবং প্রত্যাবাসন সফল হয়েছিল। এই সমস্যা তখনই দেখা দিয়েছে যখন বাংলাদেশ আর সহযোগিতা করছে না’।

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ পদক্ষেপ নেওয়ার ও মিয়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহ্বান জানাচ্ছে। এ ধরনের আচরণ করা উচিৎ নয়। দেশটি অন্যায় আচরণ করছে’।

মিয়ানমার সরকারের এই মুখপাত্র দাবি করেন, বাংলাদেশের অসহযোগিতার কারণে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরে থাকা শিশু ও বৃদ্ধরা সবচেয়ে বেশি ভুগছে, আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) শিবিরে ঢুকে পড়েছে এবং মাদকের অবাধ ব্যবহার হচ্ছে।

জ হতে বলেন, ‘সহযোগিতা না করলে বাংলাদেশের শরণার্থী শিবিরে মানবিক সংকট আরো প্রকট হবে। বাংলাদেশকে এর পূর্ণ দায় নিতে হবে। কারণ আমাদের পক্ষ থেকে প্রত্যাবাসনের জন্য প্রস্তুত রয়েছে’।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালায় সেনাবাহিনী। প্রাণে বাঁচতে এ পর্যন্ত সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে বাংলাদেশে। জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশনের প্রতিবেদনে রোহিঙ্গাদের ওপর এই নিপীড়নকে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ বলে মন্তব্য করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক চাপের মুখে মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে রাজী হলেও পরোক্ষভাবে দেশটি অসহযোগিতামূলক আচরণ করে আসছে।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরজমিনবার্তা