• ঢাকা
  • শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২০ , ফাল্গুন - ১৬ , ১৪২৬

বগুড়া প্রেসক্লাবে শোকসভা ও দোয়া মাহফিল।

news-details
বাংলাদেশ

প্রয়াত জননেতা আব্দুল মান্নানের নামে বগুড়ায় একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিক বৃন্দ। বগুড়া প্রেসক্লাবের আয়োজনে সোমবার শোকসভা ও দোয়া মাহফিলে এ দাবী জানানো হয়। বগুড়া-১ আসনের পর পর তিনবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য, প্রেসক্লাবের অন্যতম সদস্য সদ্য প্রয়াত জননেতা কৃষিবীদ আব্দুল মান্নান এর স্মরনে বেলা ১২ টায় ক্লাব মিলনায়তনে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাব সভাপতি ও দৈনিক করতোয়া সম্পাদক মোজাম্মেল হক লালু। বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল আলম নয়ন সহ নেতৃবৃন্দ। বক্তারা বলেন
প্রয়াত জননেতা আব্দুল মান্নান এর যেমন সাংগঠনিক দক্ষতা ছিল, তেমনি তার ক্ষুরধার লেখনী ছিল। তার লেখনী এবং বিভিন্ন কর্মকান্ড আওয়ামী লীগকে এগিয়ে নিয়ে গেছে। সামরিক স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে তিনি রাজনীতি করে অনেক প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্যুত হননি। তিনি প্রতিটি ক্ষেত্রে অত্যন্ত দক্ষ ও মেধাবী ছিলেন। একজন প্রতিভাবান রাজনৈতিক নেতা ছিলেন কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান। চরম দুঃসময়ে তিনি ছাত্রলীগের দায়িত্ব পেয়েছিলেন। প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তিনি রাজপথে সক্রিয় ছিলেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার পরামর্শে এবং সহযোগিতায় তিনি ছাত্রলীগকে কঠিন সময়ে নেতৃত্ব দিয়ে সংগঠিত করেছিলেন। কোন বিপর্যয় ও কষাঘাতে কখনো মাথানত করেননি বলেই তিনি রাজনীতিতে সঠিক স্থান করে নিয়েছিলেন।  দেশের কৃষি ক্ষেত্রে সার্বিক উন্নয়ন, কৃষক ও দেশের জন্য কাজ করেছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তিনি ছিলেন সব সময় অবিচল। 
বক্তারা বলেন, আব্দুল মান্নান একজন কর্মবীর মানুষ ছিলেন। তিনি নিরহংকারি মেধাবি নেতা ছিলেন। আজীবন তার প্রতি জনগণের দেয়া দায়িত্ব সুচারুভাবে পালন করে গেছেন। তার প্রচেষ্টায় সোনাতলা-সারিয়াকান্দির চেহারা পাল্টে গেছে। ইতিহাসের স্বর্নাক্ষরে আব্দুল মান্নানের নাম লেখা থাকবে। তার অভাব কোনদিন পূরণ হবে না।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা