বগুড়ার শিবগঞ্জে দাদন ব্যবসায়ী কর্তৃক সহকারী শিক্ষকের সুপারি গাছ কর্তন লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

news-details
বাংলাদেশ

 বগুড়ার  শিবগঞ্জে দাদন ব্যবসায়ী কর্তৃক সহকারী শিক্ষকের
সুপারি গাছ কর্তন লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি, থানায় অভিযোগ। 

জানা যায়  ৩১ ডিসেম্বর দেউলী ইউনিয়নে রহবলপূর্বপাড়া গ্রামের মোকামতলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সেকেন্দার আলী সহ তার পরিবারের লোকজন রাতের খাবার শেষে যার যার শয়ন কক্ষে ঘুমিয়ে পারে। রাত ১১টায় তিনি প্রকৃতির ডাকে সারা দেওয়ার জন্য ঘুম থেকে জেগা পান। এসময় তিনি ফিস ফিস ও খস খস শব্দ শুনতে পান। এসময় তিনি তার সহধর্মীনি ডেকে ঘুম থেকে জেগে তুলেন। তারা টর্চ লাইট নিয়ে বাড়ির বাহিরে গিয়ে টর্চ লাইট জ্বালাতেই দেখেন পার্শ্ববর্তী বাড়ির মৃত: কেরামত আলীর ছেলে আবুল হোসেন ও তার স্ত্রী নাছিমা বিবি সহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল সুপারি গাছ কর্তন করছে। এসময় সেকেন্দাকে মারপিট সহ খুন জখমের হুমকি দিয়ে তারা পালিয়ে যায়। পরর্তীতে সেকেন্দার ডাক চিৎকার করতে থাকলে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে। এব্যাপারে সেকেন্দার আলী বলেন আবুল হোসেন একজন খারাপ প্রকৃতির লোক ও দাদন ব্যবসায়ী । সে আমার ২০টি সুপারিশ গাছ কর্তন করে ১ লক্ষ টাকা ক্ষতি সাধন করেছে। এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বলেন, আবুল হোসেন এলাকার দাদন ব্যবসায়ী হিসাবে পরিচিত। গাছ কর্তনের বিষয়টি আমি শুনেছি । এব্যাপারে ইউপি সদস্য মেহেদুল ইসলাম  বলেন, আবুল হোসেন সুদের ব্যবসার সাথে জড়িত। সে দিন দিন ব্যাপরোয়া হয়ে উঠছে। এবিষয়ে একই গ্রামের আলম,বালি,মামুন,তোতা,সাফিউল ইসলাম,সাইদী হাসান,রাজ্জাক জানান       দাদন ব্যবসায়ী আবুল হোসেন সু-কৌশলে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতিনিয়ত তার অবৈধ কার্যকলাপ চালাচ্ছিন,এবিষয়ে প্রশাসনের  সহযোগিতা কামনা করেন সুশীল সমাজ  ।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা