আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যাহারের নির্দেশ

news-details
রাজনীতি

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:   জনমত ও বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্ট বিবেচনায় নিয়ে ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে জানিয়ে ‘বিদ্রোহী’দের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছেন দলটির নেতারা। মনোনয়ন বঞ্চিতদের ভবিষ্যতে মূল্যায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তারা বলেছেন, ‘রাজনীতি একদিনের মাঠ নয়। আজ যারা পাননি, কাজ করুন। আগামীতে মূল্যায়িত হবেন। দল করলে নেত্রীর নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে, মানতে হবে।’

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে ‘হোয়াইট হল কনভেনশন সেন্টারে’ আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় এ কথা বলেন দলটির শীর্ষ নেতারা। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে এই সভা হয়।

‘সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের কোনো বিদ্রাহী প্রার্থী দেখতে চায় না’ জানিয়ে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কর্নেল অব. ফারুক খান বলেন, “আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড বিভিন্ন আঙ্গিকে বিভিন্ন রিপোর্ট বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত দিয়েছে কে মেয়র প্রার্থী, কে কাউন্সিলর প্রার্থী ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী।

‘আমরা বিশ্বাস করতে চাই, কোনো কাউন্সিলর প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোনো বিদ্রোহী প্রার্থী থাকবে না। হয়তোবা আপনাদের মধ্যে থেকে কেউ কেউ আবেগের বশে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। মনে রাখতে হবে রাজনীতিতে আবেগের চেয়ে বেশি বাস্তববাদী হতে হবে। দলকে ভালোবাসতে হবে। নেত্রীর কথা শুধু বললে হবে না, নেত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।”

বঞ্চিতদের দলের বিভিন্ন পর্যায়ে সুযোগ দেয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘৯ জানুয়ারির পূর্বে দলের অন্য প্রার্থীরা প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে দলের প্রতি পূর্ণাঙ্গ সমর্থন দেবেন।’  এ সময় নির্বাচন উপলক্ষ্যে প্রতিটি কেন্দ্রে কমিটি গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বাইরে কোনো বিকল্প কাউকে দল চায় না উল্লেখ করে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ‘প্রতিটি নেতাকর্মীকে মাঠে নেমে কাজ করতে হবে। যে কোনো মূল্যে জনগণের কাছে পৌঁছাতে হবে। প্রতিটি নেতাকর্মীর দায়িত্ব হচ্ছে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের জয়লাভ করানো। বিকল্প নেই, আমরা দেখতে চাই না।’

তিনি আরো বলেন, ‘রাজনীতি একদিনের মাঠ নয়। আজ যারা পাননি কাজ করুন। আগামীতে মূল্যায়িত হবেন। দল করলে নেত্রীর নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে, মানতে হবে। আওয়ামী লীগ করবেন আবার নিজের স্বার্থের জন্য নেত্রীর নির্দেশনা অমান্য করবেন এটা চাই না।’  শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ‘যারা দল সমর্থিত নয়, তারা প্রার্থী থাকবেন না। প্রত্যাহার করবেন, বসে যাবেন। নৌকার বিপক্ষে দাঁড়িয়ে কেউ বেঈমানী যেনো না করি।’

দলের মনোনীত প্রার্থীর বাইরে কাউকে প্রার্থী না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, “কাউন্সিলর পদে যাদের মনোনয়ন দিয়েছি, অনেককেই দিতে পারি নাই। দয়া করে কেউ অন্য কোনো প্রার্থী হবেন না। যদি হন, মনে করব দলের প্রতি আনুগত্য নেই।

‘প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মনোনয়ন বোর্ডের সকলে একমত হয়ে জনমত ও বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্ট নিয়ে আমরা মনোনয়ন দিয়েছি। আজ থেকে ডিএনসিসি নির্বাচনের কাজ শুরু করলাম। আমরা এক ও অভিন্ন হয়ে কাজ করব।”

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, সংসদ সদস্য সাদেক খান, আসলামুল হক, ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ, আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মো. আতিকুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএ মান্নান কচি প্রমুখ।

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা