মেলার বাকি একদিন, প্রস্তুত নয় একটি স্টলও

news-details
জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা-২০২০ শুরু উপলক্ষে আগামীকাল (৩১ ডিসেম্বর) সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। অথচ আজ সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) পর্যন্ত মেলার একটি স্টলও প্রস্তুত হয়নি। যদিও মেলা শুরু হতে মাঝখানে মাত্র একদিন বাকি। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে এই মেলা।

গতবারের মতো এবারও বাণিজ্য মেলার আয়োজন করা হচ্ছে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পূর্ব পাশের মাঠে।
সোমবার মেলা পরিদর্শন ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১ জানুয়ারির মধ্যে মেলার অধিকাংশ স্টলই প্রস্তুত করা সম্ভব নয়।

দুপুরে বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, এখন পর্যন্ত একটি স্টলও সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত নয়। এমন কি মূল ফটকই প্রস্তুত করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। জাতীয় স্মৃতিসৌধ ও পদ্মাসেতুর আদলে তৈরি হওয়া মূল ফটকের কাজ এখনও বেশ বাকি। সব স্টলেই কাজ চলছিল পুরোদমে। মেলায় একশ স্টল করে দেয়ার চুক্তিতে কাজ করছেন জান্নাত আলী। তিনি মনে করেন, ১ জানুয়ারির মধ্যে সব কাজ শেষ করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

জান্নাত আলী বলেন, ‘মেলার আর একদিন বাকি আছে। যে কাজ এখনও বাকি রয়েছে, তা ১ দিনের মধ্যে শেষ করা সম্ভব না। মেলার আগে যতটুকু শেষ করা সম্ভব, ততটুকু শেষ করব। মেলার ৭ দিন পর্যন্ত কাজ করার সুযোগ থাকে। এর মধ্যে সব কাজ শেষ করার চেষ্টা করব।’

আয়োজকরা জানান, আগামী ১ জানুয়ারি শুরু হওয়া এই মেলা শেষ হবে ৩১ জানুয়ারি। বাংলাদেশ ছাড়াও ২০টি দেশ এবারের বাণিজ্য মেলায় অংশ নিচ্ছে। মেলায় এবার সবমিলিয়ে মোট ৪৫০টি প্যাভিলিয়ন থাকছে। এর মধ্যে আন্তর্জাতিক প্যাভিলিয়ন ৫৫টি। মেলার প্রস্তুতির বিষয়ে জানতে সোমবার রাতে মেলার সদস্য সচিব ও রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) উপ-পরিচালক (ফাইন্যান্স) মো. আবদুর রউফকে ফোন করা হলে তিনি তা কেটে দেন।

এর আগে সম্প্রতি তিনি কাছে দাবি করে বলেছিলেন, ‘আমরা সর্বোচ্চ পর্যায়ে চেষ্টা করছি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে। গতবারও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করেছিলাম। এবারও আশা করি, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ হবে। আশা করি সবার অংশগ্রহণে সুন্দরভাবে মেলা অনুষ্ঠিত হবে।’

তিনি আরও বলেছিলেন, ‘এবার তো মুজিব শতবর্ষ। শতবর্ষ অনুযায়ী আমাদের বিশেষ প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন বিশেষভাবে নির্মাণ করা হচ্ছে। মুজিব-বর্ষের আবহ ঠিক রেখে এটা করা হচ্ছে। আর প্রধান ফটক আমরা জাতীয় স্মৃতি সৌধের আদলে তৈরি করছি। এতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি থাকবে। দ্বিতীয় বা ভিআইপি ফটকে স্যাটেলাইট স্থাপন করা হবে।’

You can share this post on
Facebook

0 Comments

© 2013 All Rights Reserved By সরেজমিনবার্তা