মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় সেরা শিক্ষক বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯
  • ১৭২ বার পঠিত

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশকে বিশ্বের সেরা শিক্ষক বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি-মুন।

এ ক্ষেত্র বাংলাদেশকে ‘অলৌকিক’ হিসেবে বর্ণনা করে তিনি বলেন, ‘অভিজোজন বিষয়ে বাংলাদেশের কাছ থেকে বিশ্বের অনেক কিছু শেখার আছে।’

বান কি মুন জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে অভিযোজন ও এর প্রভাব মোকাবিলায় ধারণার উন্নয়নে গঠিত এ কমিশনের চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, ‘আমরা ঢাকায় এসেছি, বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা ও দূরদর্শিতা থেকে শিখতে। ২০০৯ সালে বাংলাদেশ বিশ্বে প্রথম অভিযোজন নীতি গ্রহণ করে। সত্তরের দশকে যেখানে পাঁচ লাখ মানুষ মারা গেছেন, সেখানে আজ এসব নীতির কারণে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে।’

বাংলাদেশে একটি অ্যাডাপটেশন সেন্টার প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশকে বিশ্বের সেরা শিক্ষক বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি-মুন।

এ ক্ষেত্র বাংলাদেশকে ‘অলৌকিক’ হিসেবে বর্ণনা করে তিনি বলেন, ‘অভিজোজন বিষয়ে বাংলাদেশের কাছ থেকে বিশ্বের অনেক কিছু শেখার আছে।’

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে বুধবার ‘গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপটেশন’ বিষয়ে ঢাকা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন।

বান কি মুন জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে অভিযোজন ও এর প্রভাব মোকাবিলায় ধারণার উন্নয়নে গঠিত এ কমিশনের চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, ‘আমরা ঢাকায় এসেছি, বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা ও দূরদর্শিতা থেকে শিখতে। ২০০৯ সালে বাংলাদেশ বিশ্বে প্রথম অভিযোজন নীতি গ্রহণ করে। সত্তরের দশকে যেখানে পাঁচ লাখ মানুষ মারা গেছেন, সেখানে আজ এসব নীতির কারণে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে।’

বাংলাদেশে একটি অ্যাডাপটেশন সেন্টার প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন জাতিসংঘের সাবেক এ মহাসচিব।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন মার্শাল আইল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট ড. হিলদা হেইন ও জিসিএ কো-চেয়ার ড. ক্রিস্টালিন জর্জিভা প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন জাতিসংঘের সাবেক এ মহাসচিব।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন মার্শাল আইল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট ড. হিলদা হেইন ও জিসিএ কো-চেয়ার ড. ক্রিস্টালিন জর্জিভা প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 sorejominbarta.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com