সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন

এজিদের উত্তরসূরিরা জামায়াত-শিবির নামে কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৩৮ বার পঠিত

মুসলমানদের শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর দৌহিত্র ইমাম হোসেনকে (রা.) ফোরাত নদীর তীরে কারবালার প্রান্তরে হত্যাকারী এজিদের উত্তসূরিরা বাংলাদেশে জামায়াত-শিবির নামে কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী।

মঙ্গলবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে তরিকত ফেডারেশনের দলীয় কার্যালয়ে ‘পবিত্র আশুরার দিনে মহান শাহাদাতে কারবালা’ তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নজিবুল বশর বলেন, জালিম এজিদ আজ নেই, কিন্তু তাদের উত্তসূরি ওয়াহাবি, জামায়াতসহ বিভিন্ন নামে-বেনামে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে শান্তি ও মানবতার ধর্ম পবিত্র ইসলাম আজ প্রশ্নবিদ্ধ। তাই হোসেনের (রা.) আত্মাকে ধারণ করে এদেরকে চিহ্নিত করে তাদের সাথে যারা জোট করে এবং মদদ দেয় তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে এবং নতুন করে শপথ নিতে হবে। এই জামায়াত-শিবির কারা? এরা এজিদের বংশধর। এই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিরাই এজিদের বংশধর।

তিনি বলেন, সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে একটা চক্র উঠেপড়ে লেগেছে, যার পরিণতি হবে ভয়াবহ। সরকারের কিছু লোকের কারণে অজকে এই দেশে রাজনীতি করছে, এই দেশে আহলে হাদিসের নামে কোনো সম্মেলন হয়নি। সরকার প্রধানের একজন উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানকে প্রধান অতিথি করে আহলে হাদিস সম্মেলন করেছে। সালাফিরাও প্রস্ততি নিচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে আগামীতে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হবে।

তরিকত ফেডারেশন চেয়ারম্যান বলেন, এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী জামায়াত-শিবির সরকারের সঙ্গে নিরবে মিশে গিয়ে তাদের কাজ চালাচ্ছে। আমাদের বিচ্ছিন্ন করে এজিদ বাহিনীকে শক্তিশালী করা হচ্ছে। এর পরিণতি ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।

সরকারের সঙ্গে মিশে গিয়ে স্বাধীনতা বিরোধী এজিদ বংশধরেরা তরিকতপন্থী আলেমদের ওপর নানাভাবে আক্রমণ চালানোর পাঁয়তারা করছে বলেও দাবি করেন তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, আমাদের অনেক আলেমদের ওপর আক্রমণের চেষ্টা চালানো হচ্ছে। আমি বলতে চাই, একজন তরিকত ফেডারেশনের সুন্নি আলেমদের ওপর আক্রমণ করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না, প্রয়োজনে দাঙ্গা হবে। আমাদের অচল মনে করলে ভুল করবেন। স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি তরিকত ফেডারেশন, তরিকতের ওপর আঘাত আসলে প্রয়োজনে জীবন দিয়ে দেব।

স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি হিসেবে তরিকত ফেডারেশনকে শক্তিশালী করতে সরকারকে সহযোগিতা বাড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়ে নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে বারবার বলা হচ্ছে, সরকার এবং বিরোধী দলে যারা থাকবে, উভয়েই স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি হতে হবে। তাহলে ওয়াহাবী, আহলে হাদিস, কওমিদের কেন এত সুযোগ দেয়া হচ্ছে? আমাদের শক্তিশালী করতে এগিয়ে আসুন। সারা দেশে লাখ লাখ সুন্নি আলেম স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি হিসেবে তরিকত ফেডারেশন করছে।

তরিকত ফেডারেশনের সভাপতি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীরর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব সৈয়দ রেজাউল হক চাঁদপুরী, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সৈয়দ হাবিবুল বশর মাইজভান্ডারী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ তৈয়বুল বশর মাইজভান্ডারী প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 sorejominbarta.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com