সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০১ পূর্বাহ্ন

সেরেনাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বিস্ময় কন্যা বিয়াঙ্কা

ক্রীড়া ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৫৬ বার পঠিত

মাত্র ১৯ বছর বয়স তার। সেরেনা উইলিয়ামসের ক্যারিয়ারের বয়সও তার চেয়ে বেশি। অথচ যুক্তরাষ্ট্রের আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে অভিজ্ঞ সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে ইউএস ওপেনের শিরোপা জিতে নিলেন কানাডার নতুন টেনিস সেনসেশন বিয়াঙ্কা আন্দ্রেস্কু। ৩-৬, ৫-৭ সেটে কানাডার বিস্ময় কন্যার কাছে হেরে গেছেন সেরেনা উইলিয়ামস।

সে সঙ্গে মার্গারেট কোর্টকে ছোঁয়ার অপেক্ষাও দীর্ঘায়িত হল সেরেনা উইলিয়ামসের। গতবার ফাইনালে জাপানের নাওমি ওসাকার কাছে হেরে হাতছাড়া হয়েছিল সপ্তম যুক্তরাষ্ট্র ওপেন শিরোপা। এবার আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে তিনি হেরে গেলেন বিয়াঙ্কা আন্দ্রেস্কুর কাছে।

ঘরের মাঠে দর্শক সমর্থন সেরেনার দিকে থাকলেও মার্কিন তারকাকে প্রায় হেলায় হারিয়ে দিয়ে প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের স্বাদ নিলেন ১৯ বছরের বিয়াঙ্কা।

১৯৯৯ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে এই যুক্তরাষ্ট্র ওপেন দিয়েই ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম জিতেছিলেন সেরেনা। তখন বিয়াঙ্কা আন্দ্রেস্কুর জন্মই হয়নি। প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের ২০ বছর পর শনিবার সে কোর্টেই মার্কিন তারকার কাছে সুযোগ ছিল মার্গারেট কোর্টের সর্বাধিক গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড স্পর্শ করার হাতছানি। কিন্তু তার জন্য আরও অপেক্ষায় থাকতে হলো সেরেনাকে।

অন্যদিকে সদ্য যৌবনে পা দেওয়া আন্দ্রেস্কুর প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালে শনিবার রাতে সেরেনা ছাড়াও অন্যতম বড় প্রতিপক্ষ ছিল আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামের গ্যালারি। শেষ পর্যন্ত গ্যালারিসহ সবকিছুকেই জয় করে নিলেন বছর ঊনিশের বিয়াঙ্কা। একই সঙ্গে প্রথম কানাডিয়ান হিসেবে গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের ইতিহাস গড়লেন তিনি। ম্যাচ শেষে মজা করেই তিনি বললেন, সেরেনার ভক্তরা যেন তাকে ক্ষমা করে দেয়।

ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম ফাইনাল জয়ের শুরু থেকেই সেরেনার উপর চাপ সৃষ্টি করতে থাকেন বিয়াঙ্কা। সেরেনার ডাবল ভুলের সুযোগ নিয়ে প্রথম সেটে ৪-২ ব্যবধানে লিড নেন এই কানাডিয়ান। পিছিয়ে থাকা অবস্থায় এস ও বিধ্বংসী গ্রাউন্ডস্ট্রোকে ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেন সেরেনা; কিন্তু সেই সুযোগ খুব একটা বাড়তে দেননি বিয়াঙ্কা। সেরেনাকে দাঁড় করিয়ে শেষ দু’টি গেম জিতে নেন প্রথমবার কোনও মেজর ফাইনালে পা রাখা বিয়াঙ্কা। সে সঙ্গে ৬-৩ ব্যবধানে প্রথম সেট জিতে নেন তিনি।

দ্বিতীয় সেটে কিংবদন্তি সেরেনার সামনে আরও দাপুটে ছিলেন আন্দ্রেস্কু। মার্কিন তারকাকে কার্যত ব্যাকফুটে ঠেলে ৫-১ ব্যবধানে লিড নিয়ে নেন তিনি। এরপর বিনাঙ্কা যখন প্রথম চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে, ঠিক তখন গ্যালারির প্রবল জনসমর্থনকে হাতিয়ার বানিয়ে মেগা ফাইনালে মরণকামড় দেন সেরেনা। অভিজ্ঞ সেরেনার বিষ মাখানো সার্ভিস, দুরন্ত সব ফোরহ্যান্ডের সামনে হঠাৎই ফ্যাকাশে লাগতে শুরু করে বিয়াঙ্কাকে। দু’দশকের অভিজ্ঞতা ও গ্যালারির সমর্থনকে কাজে লাগিয়ে দ্বিতীয় সেটে একসময় সমতায় ফিরে আসেন সেরেনা (৫-৫)।

কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। আবারও সেরেনার ডাবল ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে ব্রেক পয়েন্ট দখলে নিয়ে বাজিমাত করে যান বিয়াঙ্কা। শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে গড়ানোর আগেই ৭-৫ ব্যবধানে দ্বিতীয় সেট এবং সে সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ওপেন শিরোপা নিজের নামে করে নেন কানাডিয়ান লেডি।

ম্যাচ শেষে বিয়াঙ্কাকে অভিনন্দন জানান সেরেনা। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে যুক্তরাষ্ট্র ওপেনের নতুন রানি বলেন, ‘এই মুহূর্তটার জন্য প্রচুর পরিশ্রম করেছি। অবশেষে স্বপ্ন সত্যি হল। সেরেনার মত কিংবদন্তির বিরুদ্ধে এমন মঞ্চে খেলতে পারা অভাবনীয় একটা ব্যাপার।’

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 sorejominbarta.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com