সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন

সৃষ্টির জ্ঞানটা ভেতর থেকে থাকতে হবেঃ মোনালিসা মুন্নী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১৯৯ বার পঠিত

ছোট বেলা থেকেই লেখালিখির শখ ছিল তার। ডায়েরী লিখা শুরু করেন একদিন হঠাৎ করেই তখন তিনি ষষ্ঠ শ্রেনির ছাত্রী। ডায়েরী লিখতে লিখতে একদিন গল্প লিখার ইচ্ছে হল আর এভাবেই লিখার জগতে পা রাখেন তিনি পাঠক মহলে পরিচিতিও পান বলছি লেখিকা ও সমাজসেবীকা মোনালিসা মুন্নীর কথা। সম্প্রতি এই লেখিকার সাথে কথা বলে জানা যায় এ পর্যন্ত নয়টি বই প্রকাশিত হয়েছে তার।
বই গুলো হল “নিষিদ্ধ জগতের বেসাতি ঘর”(২০১৯), “যুদ্বাহত পোকাদের গল্প” (২০১৭), “শিশু কিশোরদের ভূত এফ এম ও মিনার বিয়ে” (২০১৬),“অপ্রত্যাশিত কষ্টগুলো”(২০১৪), “বন্দী মানবের নগ্ন দেবতা”(২০১২), “পরকীয়ার প্রণয়িনী, নিষিদ্ব প্ললীর বিনিন্দিতা রমণী”(২০১১) ও “অবন্তীর আরো একটি আকাশ আছে” (২০০৯)।
মোনালিসা মুন্নী বলেন, বন্ধু বান্ধবীদের উৎসাহে মূলত গল্প লিখা শুরু করি তখন আমি নবম শ্রেনীর ছাত্রী। সেই সময় থেকেই গল্প লিখার প্রতি প্রবল আগ্রহ জন্মে তাই এস এস সি পরীক্ষা দিয়েই প্রচুর বই পড়া শুরু করলাম বিশেষ করে হুমায়ুন আহমেদের বই। এভাবেই আসলে লিখালিখি শুরু করছিলাম। কিন্তু যে সুদীর্ঘ পথ পারি দিয়ে এসেছি তা সহজ ছিলনা মোটেও বিয়ে হল তারপরও লিখাটা চালিয়ে গেলাম। একা একাই খুজে বের করলাম প্রকাশনা কারো সাহায্য ছাড়াই। ২০০৯ সালে বের করলাম প্রথম বই “অবন্তীর আরো একটি আকাশ আছে”।
তিনি বলেন আসলে যখন একটি লিখা শেষ করি তখন নিজের মনের ভিতর এক ধরনের তৃপ্ততা পাই এখানেই মনে হয় একজন লেখক বা লেখিকার আসল আনন্দ। বিশাল কিছু হতে চাই এমন ভাবনা থেকে কখন লিখিনি কিন্তু পাঠকরা হয়ত আমি না থাকলেও আমার লিখা বই গুলো পড়বে এটা ভেবেই আনন্দ পাই।


যেহেতু বিভিন্ন গল্প লিখছি তাই নাট্যকার হওয়ার ইচ্ছেটা আছে তাছাড়া লিখালিখির পাশাপাশি সংগঠনের সমাজসেবা মূলক কাজ নিয়ে বাস্ত থাকা হয়। ভাইস চেয়রম্যান হিসেবে নিয়োযিত আছি সেন্টার ফর হিউম্যান সংগঠনটিতে।পাশপাশি প্রতি বছর বই মেলাতে বই বের করছি একটি করে এবং একটি করে বই বের করা ও লিখালিখি নিয়েই থাকতে চাই। মানুষ আমার লিখা দিয়ে আমাকে যদি চিনে তাতেই আমি সন্তুষ্ট।
তরুণ সমাজের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন ভালো মানেই লিখার জন্য প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে পাশাপাশি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে। সৃষ্টির জ্ঞানটা ভেতর থেকে থাকতে হবে বিভিন্ন লেখকের বই পড়তে হবে কিন্তু তাদেরকে অনুকরণ করে লিখা যাবেনা। আমি লেখক বা লেখিকা আমার নিজের সত্ত্বা থাকতে হবে। লেখিকার নতুন লেখকদের প্রতি একটা উপদেশ লেখক সত্তা যার যার। বড় লেখকদের অনুসরন করা হোক অনুকরন নয়।
প্রকৃতি প্রেমী এই লেখিকা ভ্রমণ করতে ভালোবাসেন। হুমায়ুন আহমেদকেই আইডল মনে করেন তিনি। উনার মত লিখা লিখে পাঠক ধরে রাখাটা বিশাল এক অর্জন বলে মনে করেন এই লেখিকা।এছাড়া সুনীল ও সমরেশের লিখাও ভালো লাগে বলে জানান তিনি।
মোনালিসা মুন্নী সমসাময়িক বাস্তব গল্পগুলো নিয়ে লিখতে পছন্দ করেন। আগামী ২০২০ এর একুশে বই মেলায় আসছে কিছু বাস্তব গল্প মিয়ে লেখিকার একটি চমকপ্রদ ছোট খন্ডের গল্পের বই। যার লেখার কাজ এগিয়ে চলছে। বইটি পাওয়া যাবে একুশে বই মেলায় শিখা প্রকাশনীর স্টলে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 sorejominbarta.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com