না’গঞ্জ জেলা আ’লীগের শীর্ষ নেতাদের ব্যর্থতায় মন ভাঙলো স্থানীয় নেতাকর্মীদের

না’গঞ্জ জেলা আ’লীগের শীর্ষ নেতাদের ব্যর্থতায় মন ভাঙলো স্থানীয় নেতাকর্মীদের

নিজস্ব প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ :
গত মঙ্গলবার বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে, আগামী ১৫জুলাই আ’লীগের সদস্য নবায়ন ও সদস্য ফরম বিতরণ উপলক্ষে, জেলা ও বন্দর থানা আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি মূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিলো।
সভায় শীর্ষ নেতারা ঘোষনা দিয়েছিলেন, আগামী ১৫ই জুলাই আসন্ন অনুষ্ঠানে, প্রধান অতিথি শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এবং প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।
কিন্তু বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় আসন্ন অনুষ্ঠান সাফল্য মন্ডিত করার লক্ষ্যে পূনরায় উক্ত ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
আয়োজিত সভায়, জেলা আ:লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল হাই, সহ সভাপতি আরজু রহমান ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এড. আবু হাসনাত মো. শহিদ বাদল, সাংগঠনিক সম্পাদক একে এম সুফিয়ান ও থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ রশিদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. আবেদ হোসেন সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ রউফ, প্রচার সম্পাদক হাবিবুর রহমান, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মো. সোনা মিয়া, মদনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি শুক্রর আলী, সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আ: লীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম কাসেম, বন্দর ইউনিয়ন আ: লীগের সভাপতি মো. শহিদুল্লাহ, ধামগড় ইউনিয়ন আ: লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলী, থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজমুল হাসান আরিফ, থানা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মো. হাতেম, ত্রান ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এবং ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. মাসুম আহমেদ, মো. ফয়েজুর রহমান মেম্বার, আইয়ুব হোসেন মেম্বার, মোসা: সখিনা বেগম মেম্বার সহ আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের অসংখ্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভায় জেলা আ:লীগের সহ সভাপতি আরজু রহমান ভূঁইয়া ও ভিপি বাদল বলেন, রাষ্টীয় কাজে শিল্পমন্ত্রী ১৫ই জুলাই আমাদের আয়োজিত অনুষ্ঠানে আসতে পারবেন না। কিন্তু আ:লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল আসবেন। তিনিই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি।
ঠিক তখনি উপস্থিত নেতাকর্মীদের মুখে কালো মেঁঘের ছায়া নেমে আসে।
কারন, বন্দরে শিল্পমন্ত্রী ্আসবে বলে, শত কর্ম ব্যস্ততা রেখে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা নিয়ে আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন নেতাকর্মীরা।
কিন্তু হটাৎ করে শিল্পমন্ত্রী আসবে না যেনে মন ক্ষুন্ন হৃদয় নিয়ে বাড়ি ফিরেন স্থানীয় নেতারা। শিল্পমন্ত্রী না আসার কারনে, যেনো আশার আলো নিভে গেলো স্থানীয় নেতাদের। কারন, উৎসব মূখর পরিবেশে শিল্পমন্ত্রীকে স্বাগতম জানানোর প্রত্যশা ছিলো নেতাকর্মীদের মনে।
তবে শিল্পমন্ত্রী না আাসার ঘোষনায়, অনেকেই মনে করেন, এটা জেলা ও থানার শীর্ষ নেতাদের ব্যর্থতা।
তবে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বলে আলোচনা সভায় সিদ্ধান্ত নেন নেতাকর্মীরা। অন্যদিকে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে কে থাকবে, সাংবাদিকদের সেটা নিশ্চিত করে বলতে পারে নি, থানা আ:লীগের সভাপতি এম এ রশিদ।
এদিকে মঙ্গলবার শিল্পমন্ত্রী আসবে বলে, শিল্পমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত প্রায় ৪ থেকে ৫শ ফ্যাস্টুনও তৈরি করেন বলে জানিয়েছেন, থানা আ:লীগের সভাপতি ও প্রবীন রাজনীতিবিদ বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ রশিদ।
সভা শেষে তিনি বলেন, আবারও নতুন করে ফ্যাস্টুন তৈরি করতে হবে।
অন্যদিকে সরেজমিনে দেখা যায়, যে মাঠে অনুষ্ঠানের মঞ্চ তৈরি হচ্ছে, তার পাশে আবর্জনা ও ময়লার স্তুব।
তাছাড়া ১৫ই জুলাই অনুষ্ঠানকে ঘিরে নানা সমালোচনা হলেও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের আগমনে ও অনুষ্ঠান সাফল্য করতে মোটামুটি প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

Comments are closed.

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40