টাকা, সৌন্দর্য কোনও কিছুই স্থায়ী নয়। মানেন তো ?

টাকা, সৌন্দর্য কোনও কিছুই স্থায়ী নয়। মানেন তো ?

প্রেম তো জীবনে নানাভাবে আসে। আসলে জীবন মাত্রই প্রেমময়। ঘুম থেকে ওঠা ইস্তক প্রেম পায় অনেকের। ধরুন এই মুহুর্তে আপনি কোনও একটি রিলেশনে আছেন। কিন্তু প্রতি মুহুর্তে মনে হচ্ছে বোধহয় এর চেয়েও বেটার অপশন পাওয়া যেত। কখনও মনে হচ্ছে প্রাক্তন বোধহয় এখনকার চাইতে ভালো ছিল। এই রকম ক্রাইসিসে অনেকেই ভোগেন। আপনিও ভুগছেন কি ?
যদি হয় তাহলে বুঝবেন আপনার ভাবনায় বা ব্যবহারে কোনও গন্ডোগল আছে। আপনি নিজের মর্জিতেই চলবেন। তবুও একবার নিচের পরামর্শগুলো পড়তে পারেন-

এক নম্বর : ত্রাশ আর প্রেম যে আলাদা এই বিষয়টা আগে নিজের কাছে ক্লিয়ার রাখুন। ত্রাশ প্রায়ই খাওয়া যায়। যার তার প্রতি। কিন্তু প্রেম অমন ভাবে আসে না। প্রেমটা একজনের সঙ্গেই হয়। ত্রাশের সঙ্গে প্রেমিক বা প্রেমিকার তুলনা টানবেন না। ততে ঝামেলা, মনখারাপ বাড়বে। দূরত্ব বাড়বে। যোগাযোগ কমবে।

দুই নম্বর : টাকা, সৌন্দর্য কোনও কিছুই স্থায়ী নয়। মানেন তো ? এই সব কিছু দিয়ে কিন্তু প্রেম ঠেকানো যায় না। আসলে দুটো মানুষের সম্পর্কে এই তিনটি জিনিসের খুব প্রয়োজন। তা হলো- বিশ্বাস, ভরসা আর ভালোবাসা। এবং সম্পর্কের প্রতি শ্রদ্ধা। এর বেশি সত্যি আর কিছুর প্রয়োজন পড়ে না।

তিন নম্বর : ছেলে অথবা মেয়ে, দেখতে হ্যান্ডসাম এই দেখে বিচার করবেন না। প্রেমে অন্ধ না হওয়াই ভালো। মাত্র কয়েকদিনের ভ্যালিডিটি এই মানসিকতা নিয়ে প্রেম না করাই ভালো। যাঁকে সঙ্গী হিসাবে বেছে নিচ্ছেন তার ভালো খারাপ উভয়ই বিচার্য।

চার নম্বর : নিজের চাহিদা, অভিযোগ একে অপরকে খুলে বলুন। কোনও কিছু লুকনো না রাখাই ভালো। প্রেমিক বা প্রেমিকা ছাড়াও অন্য কারোর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক থাকতেই পারে। তা সঙ্গীর কাছে লুকিয়ে অশান্তি না বাড়ানোই ভালো।

পাঁচ নম্বর : প্রেমে আমরা অনেক সময় তাল-জ্ঞান-মাত্রা সবই হারিয়ে ফেলি। তাই ভুল ভ্রান্তি কিছুই ধরা পড়ে না। উল্টো কেউ যদি সঙ্গীর খুত ধরে তাহলে বিরক্ত লাগে বইকি। এসব ক্ষেত্রে খুব কাছের বন্ধুদের পরামর্শ মেনে চলুন। একটা মানুষকে এক একজন ভিন্ন ভাবে চেনে। তাই আপনি ছাড়াও অন্য কারোর মতামত ভীষণ ভাবে জরুরি।

ছয় নম্বর : ধরা যাক আপনারা দুজনে প্রেম করছেন। কোনও একদিন দেখলেন আপনার সঙ্গী ফোনে অনেকক্ষন ধরে কথা বলছে। কেন এত কাথা এই নিয়ে আপনার মনে অকারণ সন্দেহ। সেখান থেকে ঝামেলা। ভুলবোঝাবুঝি। এর থেকেই সম্পর্কে তিক্ততা আসে। তিক্ততার সূত্রপাত মানেই সম্পর্কে তৃতীয় ব্যক্তির এন্ট্রি। কাজেই বিশ্বাসটা রাখার চেষ্টা করুন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে- মো. সাইদুল ইসলাম

Comments are closed.

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40