আবিষ্কৃত হলো ফুসফুসের নতুন ক্যান্সার

আবিষ্কৃত হলো ফুসফুসের নতুন ক্যান্সার

ফুসফুসের নতুন ধরনের ক্যান্সার চিহ্নিত করেছেন বিজ্ঞানীরা। ছোট আকারের এই ক্যান্সারকে বলা হচ্ছে ‘স্মল-সেল লাং ক্যান্সার (এসসিএলসি)’। অতীতে এ ধরনের ক্যান্সারের দেখা মেলেনি। এই আবিষ্কার ক্যান্সার নিরাময়ে বিশেষায়িত ওষুধ তৈরির পথতে আরো সম্ভাবনাময় করবে বলে মনে করছেন তারা।

ক্যান্সার ধরা পড়ার পর থেকে কেমোথেরাপি, রেডিওথেরাপি এবং সার্জারির মাধ্যমে ৬ শতাংশ রোগী আরো ৫ বছর পর্যন্ত বেশি বাঁচতে পারেন। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হলো, ১০-১৫ শতাংশ ফুসফুসের ক্যান্সারই আসলে এসসিএলসি।

জিনস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট জার্নালে প্রকাশিত ওই গবেষণাপত্রে বলা হয়, মানব ফুসফুসে গজানো এসসিএলসি টিউমারে জেনেটিক আচরণ বেশ অদ্ভুত। প্রায় ২০ শতাংশ নমুনায় এমনটাই মিলেছে। এই ক্যান্সারে মানুষের জিনগুলো অনাকাঙ্ক্ষিত আচরণ করে।

পালমোনারি নিউরোএন্ডোক্রাইন কোষে নিউরোএন্ডোক্রাইন মার্কারের অভাবও দেখেছেন বিজ্ঞানীরা। এই কোষই এসসিএলসি’র উৎস বলে মনে করা হচ্ছে। সংখ্যায় নগন্য এই কোষগুলোর চরিত্র বুঝতে বিজ্ঞানীরা বিশেষ পদ্ধতি তৈরি করেন। জিন এডিটিং টুল ‘ক্রিসপার’ এর মাধ্যমে কোষের বিশেষ প্রোটিন চিহ্নিত করা হয়েছে। এই প্রোটিনগুলোই মানবদেহে ক্যান্সার কোষ গঠনের জটিল কাজ করে থাকে।

ক্রিসপার স্ক্রিনের মাধ্যমে দেখা গেছে, পিওইউ২এফ৩ নামের এক ট্রান্সক্রিপশন ফ্যাক্টর এসসিএলসি টিউমার গঠনে বড় ভূমিকা রাখে। আর এতে খুব অল্প পরিমাণে নিউরোএন্ডোক্রাইন মার্কার মেলে।

বোঝা গেছে, ‘টাফট সেলস’ নামের বিরল প্রজাতির এক বিচ্ছিন্ন কোষ থেকেই এসসিএলসি টিউমারের সৃষ্টি হয়।

আমেরিকার কোল্ড স্প্রিং হার্বার ল্যাবরেটরির প্রধান গবেষক ক্রিস্টোফার ভাকোক বলেন, ক্রিসপার স্ক্রিনের মাধ্যমে চিকিৎসাবিজ্ঞানে এই নতুন ধরনের রোগ আবিষ্কৃত হলো।

Comments are closed.

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40