সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাজ্য

সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাজ্য। আজ শুক্রবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাজ্যের এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয়–বিষয়ক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মার্ক ফিল্ড এ কথা বলেন। এ সময় তিনি দুই মেয়াদে নির্বাচনে অংশ না নিলে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন বাতিলের প্রসঙ্গটিও সামনে আনেন।

দুপুরের দিকে যুক্তরাজ্য হাইকমিশনারের বাসায় রোহিঙ্গা ইস্যুকে প্রাধান্য দিয়ে ওই সংবাদ সম্মেলন হয়। এতে বাংলাদেশের জাতীয় ও সদ্যসমাপ্ত সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়েও কথা বলেন ব্রিটিশ প্রতিমন্ত্রী।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মার্ক ফিল্ড বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাজ্য। যেখানে সব দল ভূমিকা রাখবে। যুক্তরাজ্যে বসবাসরত বাংলাদেশিদের এখানকার নির্বাচন নিয়ে আগ্রহ রয়েছে। তিনি মনে করেন, নির্বাচনের পর যে সরকার গঠিত হবে, তাতে জনমতের প্রতিফলন ঘটবে।

নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণের গুরুত্ব তুলে ধরে মার্ক ফিল্ড বলেন, লন্ডনে বিএনপি প্রতিনিধির সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বার্থে দলটিও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখতে চায়। ওই আলোচনায় বাংলাদেশের নির্বাচনী আইন অনুযায়ী পরপর দুটি নির্বাচনে অংশ না নিলে নিবন্ধন বাতিলের প্রসঙ্গটি এসেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ব্রিটিশ এই প্রতিমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের নিপীড়নের দায়ে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক অংশীদারদের নিয়ে মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রাখবে যুক্তরাজ্য।

মার্ক ফিল্ড বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতার অভিযোগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে তদন্তের বিষয়টি সামনে চলে এসেছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) এ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের ভূমিকা কী হবে, জানতে চাইলে মার্ক ফিল্ড বলেন, মিয়ানমার আইসিসির সদস্য না হওয়ায় এ ক্ষেত্রে একটি জটিলতা রয়েছে। তাই এ নিয়ে দেশটির পর্যবেক্ষণের জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

মার্ক ফিল্ড আরও বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী পাঁচ সদস্য দেশের মতপার্থক্য রয়েছে। স্থায়ী সদস্যদের ভেটো দেওয়ার ক্ষমতার বিষয়টিকে বিবেচনায় নিতে হচ্ছে। তাই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারের ওপর কার্যকর উপায়ে চাপ দেওয়া এবং রোহিঙ্গা নির্যাতনের জন্য অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিচারের বিষয়টি নিশ্চিত করতে বিকল্প পথে ব্যবস্থা নেওয়ার পথে হাঁটছে যুক্তরাজ্য।

রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করেন মার্ক ফিল্ড। তিনি বলেন, ‘আমরা দেখতে চাই রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও মর্যাদার সঙ্গে ফিরতে দেওয়া হচ্ছে।’ এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘যে মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে, তাতে বাংলাদেশের কোনো ভূমিকা নেই। কাজেই রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয় জনগণের স্বার্থে, বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে সহায়তা বাড়ানো আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।’

Comments are closed.

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40