মহাকাশে স্থায়ী বসবাসের জন্যে গঠিত হচ্ছে নতুন জাতি

মহাকাশে স্থায়ী বসবাসের জন্যে গঠিত হচ্ছে নতুন জাতি

আপনার কি মনে হচ্ছে যে দুনিয়াটা কুকুরদের দখলে চলে গেছে? এই দুনিয়া ছেড়ে অন্য কোথাও চলে যাওয়ার অবস্থা তৈরি হয়েছে? যারা মনে করছেন তাদের জন্যে একটা সমাধান আছে। যারা নয়া জীবনের আশায় দুনিয়া ছাড়তে চান তারা ‘আসগার্ডিয়া জাতি’র সদস্য হতে পারেন। এই জাতি ভবিষ্যতে চাঁদে বসবাস শুরুর প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে তার সদস্যদের।

মাত্র ২০ মাস আগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে আসগার্ডিয়া। ইতিমধ্যে এর সদস্য সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২ লাখ। এদের আছে একটি সংবিধান এবং নির্বাচিত পার্লামেন্ট। এদের একজন নেতাও আছেন। তিনি আইজর আশুরবেইলি। গত সোমবার এ জাতির নেতা হিসেবে তার অভিষেক হয়েছে।

এরা উচ্চাকাঙ্ক্ষী। তাদের চিন্তা-ভাবনা চমকপ্রদ। তারা আগামী ১০ বছরের মধ্যে সংখ্যায় ১৫০ মিলিয়ন ছাড়াতে চায়। তারা মহাকাশে বাক্স বা নৌকার মতো কিছু তৈরি করবে। কৃত্রিম মাধ্যাকর্ষণ শক্তির মাধ্যমে এগুলো মহাশূন্যে স্থাপন করা হবে। সেখানেই মানুষ স্থায়ীভাবে বাস করবে।

মানবসভ্যতার ইতিহাসে বংশ পরম্পরায় এই দিনটির কথা বলা হবে, অভিষিক্ত হয়ে বক্তব্যে এ কথা বলেন আসগার্ডিয়া জাতির নেতা আশুরবেইলি। ভিয়েনার হফবার্গের সাবেক সম্রাটের প্রাসাদে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কয়েক শত মানুষ।

একজন রাশিয়ান প্রকৌশলী আইজর। কম্পিউটার সায়েন্টিস্ট এবং ব্যবসায়ী মানুষটি বলেন, আমরা ইতিমধ্যে প্রশাসনের সবগুলো শাখা প্রতিষ্ঠিত করেছি। আমি ঘোষণা করতে পারি যে, মানবসভ্যতার প্রথম মহাকাশজারী জাতি হতে চলেছি আমরা।

আসগার্ড নামটা শুনলেই অনেকের অ্যাভেঞ্জার সুপারহিরো থরের কথা মনে পড়বে। নর্স মিথলজিতে মহাশূন্যের একটি জগতের নাম আসগার্ড। সেই নামেই নিজেদের নাম রেখেছেন তারা আসগার্ডিয়া।

আইজরের লক্ষ্য হলো, এই পৃথিবীর সবচেয়ে সৃষ্টিশীল মানুষগুলোকে জাতিভুক্ত করা। এ দুনিয়ার ২ শতাংশ মানুষ সবচেয়ে বেশি সৃষ্টিশীল। আসগার্ডিয়ার নাগরিক বাছাই চলতেই থাকবে। এর জন্যে প্রয়োজনে আইকিউ পরীক্ষাও নেয়া হবে।
সূত্র: রয়টার্স

Comments are closed.

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40