রিজভী আহমেদকে পিটাতে ছাত্রদল নেতার পুরষ্কার ঘোষণা!

রিজভী আহমেদকে পিটাতে ছাত্রদল নেতার পুরষ্কার ঘোষণা!

কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থ্যতা নিয়ে রাজনীতি করে তাকে ছোট করা, দলকে বিভ্রান্ত করা এবং জনগণের সামনে বিএনপিকে ছোট করার জন্য এবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ পিটিয়ে তক্তা বানানোর জন্য ৫০,০০০ টাকা পুরষ্কার ঘোষণা করলেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় এক নেতা।
বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, বালখিল্যতা, বাচাল স্বভাবের কারণে রিজভী আহমেদের উপর এর আগে থেকেই ক্ষিপ্ত ছিলেন বিএনপির একাধিক সিনিয়রসহ ছাত্রদলের একাধিক নেতা-কর্মী। আদালতের রায়ে কারাবরণ করা খালেদা জিয়াকে নিয়ে নানা সময়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে খোদ তারেক রহমানের হাতে ঝাড়ি খাওয়ারও নজির রয়েছে রিজভীর। এর আগে রিজভী আহমেদ দাবি করেন, জেলখানার বদ্ধ ও ভ্যাপসা পরিবেশে খালেদা জিয়ার চুলে নাকি উকুন হয়েছে। মাথায় খুশকির কারণে ঘা হয়েছে। গরমের কারণে গায়ে ফোস্কা পড়েছে। শ্বাস-কষ্টসহ একাধিক সমস্যায় নাকি খালেদা জিয়ার জীবন জর্জরিত। রিজভী আহমেদের দাবি অনুযায়ী, সরকার নাকি বিএনপি নেত্রীর খাবারে বিষ মিশিয়ে তাকে হত্যা করতে চায়। খালেদা জিয়াকে কারাগারে মানসিক কষ্ট দিচ্ছে সরকার। কারাগারে খালেদা জিয়া নাকি প্রায় প্রায় মাথা ঘুরে পড়ে যান। অসুস্থ্যতার জন্য তিনি রোজা রাখতে পারছেন না।

রিজভী আহমেদের ভুয়া ও বিভ্রান্তিকর বার্তা প্রচারের জন্য বিএনপি নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষরা পথভ্রষ্ট হচ্ছেন বলে দাবি করেছেন ছাত্রদলের এক কেন্দ্রীয় নেতা। তার মতে, রিজভী আহমেদ খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে করুণার পাত্রীতে পরিণত করেছেন। বিএনপিকে প্রতিবন্ধী দলে পরিণত করেছেন রিজভী। কিছু হলেই রিজভী ও মির্জা ফখরুল মেয়ে মানুষের মত কান্না করে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন। এর আগে রিজভী আহমেদকে এসব মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য না ছড়ানোর জন্য অনুরোধ ও নিষেধ করলেও তিনি কথা কানে তুলেননি। খোদ তারেক রহমান তাকে এসব ভুয়া খবর প্রচার করে বিএনপিকে মাঠে-ঘাটে বদনাম না করার অনুরোধ করেন। কিন্তু রিজভী আহমেদ কথার মানুষ না। তিনি লাঠির ভাষা বুঝেন। রিজভী আহমেদকে তাই পিটিয়ে তক্তা বানানোর জন্য ৫০,০০০ টাকার পুরষ্কার ঘোষণা করেছেন ছাত্রদলের সেই কেন্দ্রীয় নেতা। রিজভীকে পিটিয়ে বিএনপির কলঙ্ক দূর করার জন্য সকল নেতা-কর্মীদের আহ্বান জানিয়েছেন সেই নেতা।

এর আগে ৮ জুন দীর্ঘদিন পর কারাগায়ে অাত্মীয়-স্বজনদের সাথে সাক্ষাত হয়েছে খালেদা জিয়ার। দীর্ঘ দেড়ঘন্টা আলাপের পর বেগম জিয়ার আত্মীয়-স্বজনরা জেলগেট ছেড়ে যান। জানা গেছে তিনি সুস্থ্য ও স্বাভাবিক অবস্থায় দিন পার করছেন। অথচ ৮ জুন রাতেই রিজভী আহমেদ প্রেস ব্রিফিং করে খালেদা জিয়া ভীষণ অসুস্থ্য বলে প্রচারণা চালান।

Comments are closed.

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40