সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের দাফন সম্পন্ন

সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের দাফন সম্পন্ন

::মো.আলাউদ্দীন::
হাটহাজারী থেকে ৪ বার নির্বাচিত এমপি বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য ও হুইপ হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান বিএনপি চেয়ারপার্সন এর উপদেষ্টা আলহাজ্ব মরহুম সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম(৭২) এমপি দাফন সম্পন্ন হয়েছে। ২৯ মে মঙ্গলবার বাদে জোহর লালিয়ারহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পঞ্চম ও শেষ জানাযা নামাযের পর উপজেলার লালিয়ারহাটস্থ মরহুমের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

উক্ত জানাযা নামাজে উপস্তিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পরিবেশ ও বন মন্ত্রী ব্যারিষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, বাংলাদেশ কল্যান পার্টির চেয়ারম্যান ও ১৮ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতা সৈয়দ ইবরাহিম হোসেন বির প্রতিক, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী ও সাবেক মেয়র সাবেক রাষ্ট্রদূত মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মাহবুব আলম চৌধুরী, চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক সদস্য ও উত্তরজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক আলহাজ্ব ইউনুছ গনি চৌধুরী, হেফাজতে ইসলাম নেতা ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ নাছির উদ্দিন মুনির, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য মীর মোঃ হেলাল উদ্দিন, হাটহাজারী উপজেলা বিএনপির আহবায়ক নুর মোহাম্মদ, সদস্য সচিব সোলায়মান মঞ্জু,সাথী উদয় কুসুম বড়ুয়া, জাকির হোসেন, যুবদল নেতা শাহেদ আজম সহ বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ২৮ মে সোমবার সকাল ১১টায় রাজধানীর জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিন প্লাজায় মরহুমের প্রথম ও ঢাকাস্থ পল্টন বিএনপি অফিসের সামনে দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটের দ্বিতীয় এবং বাদ আছর চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ মাঠে তৃতীয় এবং ২৯ মে মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে হাটহাজারী পার্বতী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মরহুমের চতুর্থ জানাযা নামায অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য,২৭মে রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ঢাকার একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বিএনপি নেতা আলহাজ্ব সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম। তিনি দীর্ঘ ১৪ মাস ধরে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে, আত্মীয়স্বজন, রাজনৈতিক সহকর্মীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তিনি ১৯৯১ সালে প্রথম হাটহাজারী থেকে ধানের শীষে নির্বাচন করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরে ১৯৯৬, ২০০১ সালে সংসদ সদস্যসহ মোট ৪ বার নির্বাচিত হন এবং ২০০১-০৬ সাল পর্যন্ত জাতীয় সংসদের হুইপেরও দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40