আন্দোলন-পরবর্তী প্রেক্ষাপট ও বাংলাদেশের বাস্তবতা

আন্দোলন-পরবর্তী প্রেক্ষাপট ও বাংলাদেশের বাস্তবতা

নারীর যৌন নিগ্রহ নিয়ে আন্দোলন যে হচ্ছে, কি লাভ এতে? কি হবে এই সব বলে? আজকের দুনিয়ায় এখনো যুদ্ধ মানে শত শত নারীকে ধর্ষণ, নারীর প্রতি অসদাচরণকারী পুরুষ নির্বিবাদে ভোটে জয়ী হয়ে রাষ্ট্রক্ষমতায় যায় এই পৃথিবীতে, এই ঝাঁ চকচকে সভ্য জনপদে এমনকি মেয়েশিশুরাও নিরাপদ নয় পুরুষের কাছে। #মিটু নামের এই ভার্চ্যুয়াল একাত্মতা, এই সহমর্মিতাবোধ, এ সম্মিলিত ক্রন্দন আদৌ কিছু বদলাতে পারবে কি? হয়তো পারবে না। তবে দুনিয়াজুড়ে কোথায় যেন একটা পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে। তথাকথিত ক্ষমতাবান ও প্রভাবশালী পুরুষদের অনৈতিক কার্যকলাপের বিষয়ে কখনো কিছু বলা যাবে না বা বলে লাভ নেই—এই ধারণা ক্রমাগত ভুল প্রমাণিত হচ্ছে। যৌন নির্যাতনের অভিযোগে চাকরিচ্যুত হয়েছেন উবারের সিইও ট্রাভিস ক্যালানিক, টুডে শোর বিখ্যাত উপস্থাপক ম্যাট ল্যুর বাধ্য হয়েছেন শো ছেড়ে দিতে, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন যৌন নিপীড়নকারী জিমন্যাস্টিক চিকিৎসক ল্যারি নাসার, অভিযোগ উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক সিনেটরের বিরুদ্ধে, অক্সফাম, সেভ দ্য চিলড্রেনের মতো প্রতিষ্ঠানও আজ দাঁড়িয়েছে কাঠগড়ায়, অপরাধ স্বীকার করে পদত্যাগ করেছেন অক্সফামের পরিচালক ভ্যান হাওয়ারমায়ারেন, পেন্টাগনের ১৫ হাজার নারী সেনা যৌন নিগ্রহের অভিযোগ তুলেছেন ইতিমধ্যে। ক্যালিফোর্নিয়া থেকে কায়রো পর্যন্ত ‘#মিটু’ প্ল্যাকার্ড হাতে পথে নেমেছেন হাজার হাজার নারী। অস্কার, গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড, বাফটা অনুষ্ঠানে কালো পোশাক, ব্যাজ বা গোলাপ নিয়ে দলে দলে প্রতিবাদ করছেন অভিনেত্রী ও গায়িকারা। হলিউডের পেশাজীবী নারীরা গড়ে তুলেছেন ‘টাইমস আপ’ নামের যৌন নিপীড়নবিরোধী তহবিল। টাইম ম্যাগাজিন ২০১৭ সালের সর্বাধিক আলোচিত চরিত্র হিসেবে তুলে এনেছে হাশ টাগ মি টু-কে। #মিটু বিল নিয়ে কথা হচ্ছে ইউএস কংগ্রেসে, পরিবর্তন আসছে পশ্চিমা দেশগুলোর যৌননিগ্রহ-বিষয়ক আইনে। উইকিপিডিয়ায় গুরুত্ব সহকারে সংযোজিত হয়েছে #মিটু শব্দ দুটি। আর এই প্রথম দুনিয়া দেখতে পাচ্ছে অনগ্রসর ও রক্ষণশীল সমাজ থেকেও উঠে আসছে নারীর সোচ্চার কণ্ঠ। তাহলে কি সত্যি পাল্টাবে দিন?

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40