খালেদার জামিন হবে কি না, জানা যাবে আজ

খালেদার জামিন হবে কি না, জানা যাবে আজ

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে আদেশ দেয়ার জন্য সোমবার দিন ধার্য করা হয়েছে। আজ বেলা ২টায় হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে আদেশের সময় নির্ধারণ রয়েছে।

সোমবারের কার্যতালিকায় (কজলিস্টে) খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়টি দুই নম্বরে রয়েছে। এ মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ড নিয়ে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে আছেন।

রোববার সকালে জামিনের আদেশ দেয়ার সময় পর্যন্ত বিচারিক আদালতের নথি হাইকোর্টে না পৌঁছায় হাইকোর্টের ওই বেঞ্চ সোমবার দিন ধার্য করেন।

রোববারের কার্যতালিকায় (কজলিস্টে) খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়টি এক নম্বরে ছিল। সকাল সাড়ে ১০টায় বেঞ্চের দুই বিচারপতি আসনগ্রহণের পর অন্যান্য মামলার ম্যানশন করেন আইনজীবীরা। এরপর ঘড়ির কাঁটায় যখন ১১টা ৪৪ মিনিট তখন খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের দীর্ঘ প্রথা ও এখতিয়ার আছে নথি ছাড়াই জামিন দেয়ার। আমরা চাই আজই জামিনের বিষয়ে আদেশ দেন।

এ সময় আদালত বলেন, এখতিয়ার আছে ঠিক। আমরা নথির জন্য আদেশ দিয়েছিলাম গত ২২ ফেব্রুয়ারি। বিচারিক আদালত আদেশের কপি হয়তো পেয়েছেন ২৫ ফেব্রুয়ারি। সে হিসেবে আজ ১৫ দিন শেষ হচ্ছে।

জয়নুল আবেদীন বলেন, ২২ ফেব্রুয়ারি আদেশের কপি বিচারিক আদালতে পৌঁছায়। সেই হিসেবে ১৫ দিন পার হয়ে গেছে আগেই। আদালত বলেন, ‘আমার মনে হয় আজকের দিনটি আমরা দেখি। আদেশের জন্য সোমবার বিকেলে রাখলাম।’

তবে ওই বেঞ্চ সোমবার দিন ধার্য করার পর খালেদা জিয়াকে দেয়া নিম্ন আদালতের রায়ের নথি রোববার দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে উচ্চ আদালতে পৌঁছে। নথির মোট পৃষ্ঠা সংখ্যা ৫৩৭৩।

খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে আদালত কী আদেশ দেন, তিনি (খালেদা জিয়া) কারামুক্ত হতে পারবেন কি না- তা জানার জন্য সবাই এখন আদালতের দিকে তাকিয়ে আছেন।

রোববার আদালতে খালেদার পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, অতিরিক্ত অ্যার্টনি জেনারেল মমতাজ উদ্দিন ফকির এবং সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একে এম আমিন উদ্দিন মানিক। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান।

এছাড়া এজলাসে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, মির্জা আব্বাস, আব্দুল আওয়াল মিন্টু, আইনজীবী আব্দুর রেজাক খান, এজে মোহাম্মদ আলী, সানাউল্লাহ মিয়া, আমিনুল হক, শাম্মী আক্তার, কায়সার কামাল, ব্যারিস্টার বদরোদ্দোজা বাদল ও ব্যারিস্টার এহসানুর রহমানসহ বিপুল সংখ্যক আইনজীবী ও গণমাধ্যমকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বিচারিক আদালতের এই রায়ের অনুলিপি প্রকাশিত হয়। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড স্থগিত চেয়ে পরের দিন ২০ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে আপিল করেন তার আইনজীবীরা। ওইদিন বিকেলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় খালেদার জামিন চেয়ে আপিল (আপিল নম্বর ১৬৭৬/২০১৮) করেন।

আপিল আবেদনে আদালতের দণ্ড থেকে খালাস চাওয়াসহ ৪৪টি যুক্তিসহ আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিচারিক আদালতের দণ্ড স্থগিত চাওয়া হয়। এতে বলা হয়, আবেদনকারীর বয়স ৭৩ বছর। তিনি ৩০ বছর ধরে গেঁটেবাত, ২০ বছর ধরে ডায়াবেটিস, ১০ বছর ধরে উচ্চ রক্তচাপ ও রক্তে আয়রন ঘাটতিসহ শারীরিকভাবে বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছেন।

২২ ফেব্রুয়ারি সকালে খালেদা জিয়ার পক্ষে একটি জামিনের আবেদন দাখিল করা হয়। এরপর ওইদিন আপিলের বিষয়ে শুনানি হয়। সেদিন আদালত আপিলটি ২৫ ফেব্রুয়ারি শুনানির জন্য গ্রহণ করে নথি তলব করেন। নথি ১৫ দিনের মধ্যে তা উচ্চ আদালতে পাঠাতে সংশ্লিষ্ট আদালতকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এছাড়া অর্থদণ্ডের আদেশ স্থগিত করেন। ২৫ ফেব্রুয়ারি শুনানি শেষে আদালত বলেন, নথি হাইকোর্টে পৌঁছানোর পর আদেশ দেয়া হবে।

খালেদা জিয়ার জামিনের পক্ষে তার আইনজীবীদের যুক্তি হচ্ছে, ‘আপিলকারীর মাত্র পাঁচ বছরের সাজা হয়েছে। এক্ষেত্রে জামিন দেয়ার বিষয়টি একমাত্র আদালতের এখতিয়ার। এ ধরনের অল্প সাজার ক্ষেত্রে জামিন মঞ্জুর দীর্ঘদিনের রেওয়াজ। তাছাড়া আপিলকারীর বয়স ৭৩ বছর। নানা ধরনের শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন।’

এর আগে আওয়ামী লীগের জেষ্ঠ্য আইনজীবীরা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, ‘এ ধরনের অল্প সাজার ক্ষেত্রে জামিন দেয়ার রেওয়াজ রয়েছে। আদালত বিবেচনা করলে খালেদা জিয়া জামিন পাবেন।’

তবে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের বক্তব্য হচ্ছে, ‘এ মামলায় আগেই জামিন নয়। দ্রুততার সঙ্গে পেপারবুক তৈরি করে এ মামলার আপিলের শুনানি করা হোক।

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::

More News...

Fatal error: Call to undefined function tie_post_class() in /var/sites/s/sorejominbarta.com/public_html/wp-content/themes/bdsangbad_magazine_themes/includes/more-news.php on line 40